ক্যান্ডিতে শান্তর যত কীর্তি

ক্যান্ডিতে শান্তর যত কীর্তি

স্পোর্টস ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৮:১৯ ২২ এপ্রিল ২০২১  

নাজমুল হোসেন শান্ত

নাজমুল হোসেন শান্ত

দলে নাজমুল হসেন শান্তর অন্তর্ভূক্তি নিয়েই একসময় প্রশ্ন উঠে গিয়েছিল। এই টেস্টে ব্যর্থ হলে হয়তো দলে জায়গা পাওয়া নিয়েই দেখা দিতো সংশয়। শ্রীলংকার বিপক্ষে ক্যান্ডি টেস্টে যখন ব্যাট করতে নামেন, দলও শুরুতেই উইকেট হারিয়ে কিছুটা বিপদে। সব ছাপিয়ে দুর্দান্ত এক ইনিংস উপহার দিয়েছেন শান্ত। একই সঙ্গে নাম লিখিয়েছেন বেশ কিছু রেকর্ডেও। 

সাজঘরে ফেরার আগে ৩৭৮ বলে ১৬৩ রানের ম্যারাথন এক ইনিংস খেলেছেন শান্ত। নিজের প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরির ইনিংসে সবচেয়ে বেশি বল খেলার রেকর্ডে এখন আমিনুল ইসলাম বুলবুলের পরই আছেন তিনি। ভারতের বিপক্ষে বাংলাদেশের প্রথম টেস্টে ৩৮০ বলে ১৪৫ রানের ঐতিহাসিক ইনিংস খেলেছিলেন আমিনুল। নাজমুল খেলেছেন দুই বল কম।

বাংলাদেশিদের ভেতর এক ইনিংসে সর্বোচ্চ বল খেলার রেকর্ডেও শীর্ষ পাঁচে উঠে এসেছেন শান্ত। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ২১৯ রান করতে ৪২১ বল খেলা মুশফিকুর রহিম এই তালিকায় শীর্ষে আছেন। শ্রীলংকার বিপক্ষে আশরাফুল তার ক্যারিয়ার সেরা ১৯০ রান করেছেন ৪১৭ বল খেলে। আমিনুলের কথা তো উপরে বলা আছে। এরপরই এখন শান্ত। 

নিজের প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরির ইনিংসকে বেশি দূর টেনে নেয়ার রেকর্ডেও এখন যোগ হয়েছে শান্তর নাম। মুমিনুল হক ২০১৩ সালে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ১৮১ রান করেছিলেন, যা ছিল তার প্রথম সেঞ্চুরি। নাজমুলের ১৬৩ রান আছে এই তালিকার দুইয়ে। পেছনে ফেলেছেন ২০১৯ সালে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সৌম্য সরকারের ১৪৯ রানের দুর্দান্ত ইনিংসকে।

ব্যক্তিগত রেকর্ডের পাশাপাশি জুটির রেকর্ডেও নাম লিখিয়েছেন শান্ত। তৃতীয় উইকেটে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ জুটি এখন শান্ত ও মুমিনুলের। আজ আউট হওয়ার আগে দুজনে যোগ করেছেন ২৪২ রান। ২০১৮ সালে লংকানদের বিপক্ষেই ২৩৬ রানের জুটি গড়েছিলেন মুমিনুল ও মুশফিক। 

জুটি বেঁধে বল খেলার রেকর্ডেও জায়গা পাকা করে নিয়েছেন এই দুই বাঁহাতি। ২০১৩ সালে শ্রীলংকার বিপক্ষে আশরাফুল-মুশফিক জুটি খেলেছিল ৫১৮ বল। যেকোনো উইকেট জুটিতে বাংলাদেশের হয়ে সবচেয়ে বেশি বল খেলার রেকর্ডে এটাই এখনো শীর্ষে। এর পরই আছেই শ্রীলংকার বিপক্ষে শান্ত-মুমিনুলের ৫১৪ বলের জুটি। তারা পেছনে ফেলেছেন ২০০৫ সালে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে জাভেদ ওমর-নাফিস ইকবালের ৪৯৮ বল খেলা জুটিকে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এএল