নয় বল খেলার পর বাংলাদেশ জানল, করতে হবে আরো ২২ রান!

নয় বল খেলার পর বাংলাদেশ জানল, করতে হবে আরো ২২ রান!

ক্রীড়া প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৭:৪০ ৩০ মার্চ ২০২১   আপডেট: ১৮:৩৩ ৩০ মার্চ ২০২১

লক্ষ্য বাড়িয়ে দেয়ার সময় আম্পায়ারদের সঙ্গে ক্রিকেটাররা

লক্ষ্য বাড়িয়ে দেয়ার সময় আম্পায়ারদের সঙ্গে ক্রিকেটাররা

কোনো ম্যাচের দ্বিতীয় ইনিংসে লক্ষ্য তাড়া করতে নামার আগে প্রতিটি দলই জানে তাদের কত ওভারে কত রান করতে হবে। কিন্তু আগে কী কখনো খেলা শুরু হওয়ার কিছুক্ষণ পর লক্ষ্য পরিবর্তন হতে দেখেছেন? অন্যরকম এই ঘটনাটি ঘটেছে বাংলাদেশ-নিউজিল্যান্ড সিরিজের দ্বিতীয় টি-২০তে। ঘটনা না বলে যাকে নাটক বলাই শ্রেয়!

বাংলাদেশ-নিউজিল্যান্ড দ্বিতীয় টি-২০ ম্যাচে দুই বার বৃষ্টির কারণে ম্যাচ থামাতে হয়। ফলে লক্ষ্য নির্ধারণে সবাইকে ডিএল তথা ডাকওয়ার্থ লুইস মেথডের শরণাপন্ন হতে হয়। ম্যাচ রেফারি জেফ ক্রো শুরুতে জানিয়েছিলেন, বাংলাদেশকে জিততে হলে ১৬ ওভারে ১৪৮ রান করতে হবে। এরপরই ব্যাটিংয়ে নেমে যান লিটন দাস ও নাঈম শেখ। 

ইনিংসের দৈর্ঘ্য যখন ১.৩ ওভার, তখন আবারো বন্ধ হয় খেলা। তবে এবার বৃষ্টি নয়, খোদ আম্পায়াররাই সব স্থগিত রাখেন। টিভি পর্দায় তখন দেখা যায়, ম্যাচ রেফারির সঙ্গে আলোচনায় লিপ্ত দুই দলের টিম ম্যানেজাররা। যার ফল যখন চূড়ান্ত হয়, জানা যায় জয়ের জন্য টাইগারদের আরো ২২ রান বেশি করতে হবে। যা তাড়া করতে গিয়ে শেষ পর্যন্ত ২৮ রানে হেরেছে বাংলাদেশ।

নিউজিল্যান্ডের ইনিংসে দ্বিতীয় দফা বৃষ্টি হানা দেয়ার পরই বোঝা গিয়েছিল এই ম্যাচটা গড়াবে কার্টেল ওভারে। ১৭.৫ ওভারে ৫ উইকেটে ১৭৩ রান করা নিউজিল্যান্ড পরে আর ব্যাট করতে পারেনি। বাংলাদেশের ইনিংস শুরু হলে টিভি স্ক্রিনে ম্যাচ অফিশিয়ালদের তৎপরতা দেখা যায়। সে সময় ধারাভাষ্যকাররাও বাংলাদেশের লক্ষ্য নিয়ে নিজেদের অজ্ঞতার কথা তুলে ধরেন। 

নতুন লক্ষ্য চূড়ান্ত করার পর জানানো হয়েছিল ম্যাচ অফিসিয়ালদের হিসেবের ভুলেই এমন অবস্থা। তবে ম্যাচের মাঝে লক্ষ্য পাল্টে যাওয়ার মতো ঘটনা বোধ হয় আগে কেউ কখনো দেখেনি। 

ডেইলি বাংলাদেশ/এএল