লিওয়ানদোস্কির ১৫তম গোলে শীর্ষেই থাকলো বায়ার্ন

লিওয়ানদোস্কির ১৫তম গোলে শীর্ষেই থাকলো বায়ার্ন

স্পোর্টস ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৪:১১ ২৯ নভেম্বর ২০২০  

ছবি- সংগৃহীত

ছবি- সংগৃহীত

বায়ার্ন মিউনিখের হয়ে সব ধরনের প্রতিযোগিতায় এবারের মৌসুমে ১৫তম গোল করেছেন রবার্ট লিওয়ানদোস্কি। তার এই গোলে পিছিয়ে থেকেও শনিবার স্টুটগার্টকে ৩-১ ব্যবধানে হারিয়ে বুন্দেসলিগার শীর্ষস্থান ধরে রেখেছে চ্যাম্পিয়ন বায়ার্ন মিউনিখ।

১৯ বছর বয়সী ফরাসি স্ট্রাইকার টানগাই কুলিবেলির গোলে ২০ মিনিটে এগিয়ে যায় স্টুটগার্ট। এই গোলের পেছনে বায়ার্নের দুই সেন্টার-ব্যাক ডেভিড আলাবা ও জেরম বোয়াটেংকে দায়ী করা যেতেই পারে। বিরতির আগে অবশ্য কিংস কোম্যান লো ফিনিশিংয়ে সমতা ফেরানোর পর বায়ার্নকে ২-১ গোলে এগিয়ে দেন লিও। দ্বিতীয়ার্ধে কোম্যানের পরিবর্তে মাঠে নামা ব্রাজিলিয়ান উইঙ্গার ডগলাস কস্তা ৮৭ মিনিটে সফরকারীদের হয়ে তৃতীয় গোলটি করেন। এই জয়ে আরবি লিপজিগকে দুই পয়েন্টের ব্যবধানে পিছনে ফেলে টেবিলের শীর্ষেই থাকলো বায়ার্ন।

আরেক ম্যাচে ধুকতে থাকা আর্মিনিয়া বিয়েলেফেল্ডকে ২-১ গোলে পরাজিত করে জয়ের ধারায় ফিরেছে দ্বিতীয় স্থানে থাকা লিপজিগ। ম্যানচেস্টার সিটি থেকে ধারে খেলতে আসা এ্যাঞ্জেলিনো ১৮ বছর বয়সী লাজার সামারডিচের দুর্দান্ত পাসে প্রথমার্ধে লিপজিগকে এগিয়ে দেন। বদলী বেঞ্চ থেকে মাঠে নামার ৬০ সেকেন্ডের মধ্যে ফরোয়ার্ড ক্রিস্টোফার এনকুনকু দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে ব্যবধান দ্বিগুন করেন। যদিও তলানির থেকে দ্বিতীয় স্থানে থাকা আর্মেনিয়া শেষের দিকে ভালই প্রতিরোধ গড়ে তুলেছিল। ৭৩ মিনিটে লিপজিগের হয়ে পেনাল্টি মিস করেন আলেক্সান্ডার সোরলোথ। দুই মিনিট পর অধিনায়ক ফাবিয়ান ক্লস এক গোল পরিশোধ করেন।

তবে ঘরের মাঠে কোলনের কাছে ২-১ গোলের হতাশাজনক পরাজয়ের তিক্ত স্বাদ পেয়েছে বরুসিয়া ডর্টমুন্ড। এই পরাজয়ে বায়ার্নের থেকে চার পয়েন্ট পিছিয়ে তৃতীয় স্থানে রয়েছে ডর্টমুন্ড। তিউনিশিয়ান মিডফিল্ডার ইলিয়েস শাকিরি দুটো গোলই করেছেন ডর্টমুন্ডের সাবেক উইঙ্গার মারিয়ান উল্ফের কর্নার থেকে। ৬০ মিনিট পর্যন্ত ডর্টমুন্ড যখন ২-০ গোল পিছিয়ে ছিল কোচ লুসিয়ান ফাভওে তিনজন ফরোয়ার্ডকে মাঠে নামান। যার মধ্যে ছিলেন- ১৬ বছর বয়সী ইউসুফ মুকোকো, গিওভান্নি রেইনা ও থ্রোগান হ্যাজার্ড। ১৮ বছর বয়সী রেইনার সহায়তায় হ্যাজার্ড এক গোল পরিশোধ করলেও তা পরাজয়ের হাত থেকে ডর্টমুন্ডকে রক্ষা করতে পারেনি।

আগের দুই ম্যাচে ৬ গোল করা ডর্টমুন্ড স্ট্রাইকার আর্লিং ব্রট হালান্ডকে কড়া পাহারায় রেখেছিল কোলন। শেষ বাশি বাজার আগে সমতা ফেরানোর সুবর্ন সুযোগ নষ্ট করেছেন এই নরওয়েজিয়ান। ১৯৯১ সালের পর এটি ডর্টমুন্ডের মাটিতে কোলনের প্রথম জয়। এর মাধ্যমে টানা ১৯ ম্যাচে জয়বিহীন থাকার রেকর্ড এড়াতে পেরেছে কোলন। গত মৌসুমে ৩৪ ম্যাচে ২৪ গোল করা হালান্ড এ বছর ১০ ম্যাচে এখনো গোল করতে পারেননি।

ঘরের মাঠে এইনট্রাখট ফ্রাংকফুর্টের সঙ্গে উত্তেজনাকর ম্যাচে ৩-৩ গোলে ড্র করার পর ষষ্ঠ স্থানে রয়েছে ইউনিয়ন বার্লিন। অগাসবার্গের সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র করে টানা আট ম্যাচ জয়বীহিন রয়েছে ফ্রেইবার্গ। লিওয়ানদোস্কির ১৫তম গোলে শীর্ষেই থাকলো বায়ার্ন।
 

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডআর