ম্যারাডোনাকে ফুলের মুকুট উপহারে পেলের শেষ শুভেচ্ছা

ম্যারাডোনাকে ফুলের মুকুট উপহারে পেলের শেষ শুভেচ্ছা

স্পোর্টস ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৩:৪৪ ২৮ নভেম্বর ২০২০   আপডেট: ১৩:৪৫ ২৮ নভেম্বর ২০২০

ম্যারাডোনার শেষ যাত্রার কফিন

ম্যারাডোনার শেষ যাত্রার কফিন

ফুটবল বিশ্ব পেলে ও ম্যারাডোনাকে জানে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে। দুজনের মাঝে কে সেরা, এ লড়াইয়ের সঠিক উত্তর পাওয়া যাবে না জেনেও থামে না যুক্তি তর্ক। বাইরে সবাই প্রতিদ্বন্দ্বী ভাবলেও ভেতরে ঠিকই বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক বজায় রেখেছিলেন পেলে ও ম্যারাডোনা। আর্জেন্টাইন কিংবদন্তির মৃত্যুর পর সেই উদাহরণ আর একবার দিয়েছেন ফুটবলের কালো মানিক। ম্যারাডোনার শেষ যাত্রায় ফুলের মুকুট উপহার পাঠিয়েছেন তিনি।

আর্জেন্টিনার সর্বকালের সেরা ফুটবলার ম্যারাডোনাকে সমাহিত করা হয়েছে রাজধানী বুয়েন্স আয়ার্স শহর থেকে একটু দূরে বেল্লা ভিস্তা সমাধিক্ষেত্রে। তার আগে দেশটির প্রেসিডেনশিয়াল ভবন কাসা রোসাদায় রাখা হয়েছিল ম্যারাডোনার কফিন। ভালোবাসার মানুষকে সেখানে শেষ শ্রদ্ধা জানাতে নেমেছিল জনতার ঢল। পুলিশের সঙ্গে এক পর্যায়ে ম্যারাডোনার ভক্তদের সংঘর্ষও হয়েছে। 

পেলের পাঠানো শ্রদ্ধা ও ভালোবাসার পুষ্পস্তবক বহনকারী গাড়ি সংঘর্ষের মাঝে পড়েছিল। জনতা গাড়িটি ঘিরে রাখায় কয়েক দফা চেষ্টা করেও সেটি কাসা রোসাদায় ঢুকতে পারেনি। পরে গাড়িটি বেল্লা ভিস্তার সমাধিক্ষেত্রে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানেই অর্পণ করা হয় পুষ্পস্তবক।

পেলের পাঠানো ফুলআর্জেন্টিনার সংবাদমাধ্যম ‘টিওয়াইসি স্পোর্টস’ খবরটি এভাবে জানিয়েছে— রাজা আর্জেন্টাইন নক্ষত্রকে নিজের মুকুট পাঠিয়েছেন। ব্রাজিলের জাতীয় পতাকার সঙ্গে মিল রেখে হলুদ, সবুজ ও নীল ফুলে পুষ্পস্তবকটি বানানো হয়েছে। এছাড়া ছিল আর্জেন্টিনার পতাকাও। 

পুষ্পস্তবকের সঙ্গে একটি বার্তাও পাঠান পেলে। সেখানে লেখা ছিল, ‘ঈশ্বর তাকে প্রতিভা দিয়েছিলেন, পৃথিবী তাকে ভালোবেসেছিল- পেলে।’

ম্যারাডোনার মৃত্যুতে মুষড়ে পড়েছিলেন পেলে। দুঃসংবাদটি পাওয়ার পরই তিনি টুইট করেছিলেন, ‘কী দুঃখের খবর। আমি আমার অসাধারণ এক বন্ধুকে হারালাম। এখন অনেক কিছুই বলা হবে। আপাতত তার পরিবারকে শোক সহ্য করার শক্তি দিন সৃষ্টিকর্তা। আশা করি, আমরা একদিন স্বর্গে ফুটবল খেলব।’

ডেইলি বাংলাদেশ/এএল