ম্যারাডোনার নামে ধর্ম, আছে চার্চও

ম্যারাডোনার নামে ধর্ম, আছে চার্চও

স্পোর্টস ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১২:১৮ ২৬ নভেম্বর ২০২০   আপডেট: ১২:৩৩ ২৬ নভেম্বর ২০২০

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

বুধবার না ফেরার দেশে চলে গেছেন আর্জেন্টিনার কিংবদন্তি ফুটবলার দিয়েগো ম্যারাডোনা। হার্ট অ্যাটাকের কারণে মারা যান তিনি। ম্যারাডোনাকে ফুটবলের ঈশ্বর বলে ডাকা হয়। শুধু তাই নয়, তার নামে আছে ধর্ম এবং আলাদা একটি চার্চও। 

আর্জেন্টাইনদের মনে ম্যারাডোনার অবস্থান কোন স্থানে, তারই উদাহরণ হচ্ছে ম্যারাডোনিয়ান চার্চ। ১৯৯৮ সালে ম্যারাডোনার ৩৮তম জন্মদিনে চার্চটি প্রতিষ্ঠিত হয়। যারা এই ধর্মের অনুসারী তাদের ম্যারাডোনিয়ান হিসেবে অভিহিত করা হয়। 

ম্যারাডোনিয়ান চার্চটি আর্জেন্টিনার রাজধানী বুয়েনস আয়ার্স থেকে ২০০ কিলোমিটার দূরে রোজারিওতে অবস্থিত। এখানে সবাই ১০ নম্বর জার্সি পরে প্রার্থনা করতে আসে। সেখানে ধর্মগ্রন্থ হিসেবে পড়ানো হয় ম্যারাডোনার আত্মজীবনী। সারা বিশ্বে দুই লাখ ভক্ত এই চার্চের অনুসারী।

ম্যারাডোনিয়ান চার্চের ভেতরেচার্চের ট্রাস্টি বোর্ডে রয়েছেন আর্জেন্টিনার সাবেক ফুটবলার আলেজান্দ্রো ভেরন। তিনি স্মৃতিচারণে বলেন, একবার ২৯ অক্টোবর মাঝ রাতে একটা ফোন পান। ট্রাস্টি বোর্ডের এক সদস্যই তাকে ফোন করে বলেন, ‘মেরি এক্স-মাস’। ভেরন বলেন, ‘তোমার মাথা খারাপ হয়ে গেল নাকি? আজ তো আমরা সবে ৩০ অক্টোবরে পড়লাম।’

ফোনকারী সোজা উত্তর দিয়ে বলেন, ‘ঠিক তাই। আমাদের যিশু তো ৩০ অক্টোবরই জন্মেছেন।’ এই কথা থেকেই অনুমান করা যায় আর্জেন্টিনার জনমনে ম্যারাডোনার অবস্থান কেমন ছিল। এই কিংবদন্তি না থাকলেও থেকে যাবে তার স্মৃতি। সবার মনে ভালোবাসার একজন হিসেবেই থাকবেন দিয়েগো।

ডেইলি বাংলাদেশ/এএল