বাঁচা-মরার লড়াইয়ে তামিম একাদশ

বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপ

বাঁচা-মরার লড়াইয়ে তামিম একাদশ

ক্রীড়া প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৯:৫৬ ২০ অক্টোবর ২০২০  

জয়ের লক্ষে নাজমুল একাদশের বিপক্ষে মাঠে নামবে তামিম একাদশ

জয়ের লক্ষে নাজমুল একাদশের বিপক্ষে মাঠে নামবে তামিম একাদশ

ফাইনালে খেলার লক্ষ্য নিয়ে বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপের ষষ্ঠ ও শেষ লিগ ম্যাচে নাজমুল একাদশের বিপক্ষে মাঠে নামবে তামিম একাদশ। মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ম্যাচটি শুরু হবে বেলা ১টা ৩০ মিনিটে। ম্যাচটি সরাসরি ইউটিউব ও বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্র্ডে (বিসিবি) ফেসবুক পেইজে দেখা যাবে। বেসরকারী টেলিভিশন গাজী টিভিও সরাসরি ম্যাচটি দেখাবে।

নাজমুল একাদশের বিপক্ষে এ ম্যাচে হেরে গেলেই টুর্নামেন্ট থেকে বিদায় নিতে হবে তামিম একাদশকে। জয় ছাড়া কোন সমীকরনেই তামিম একাদশের আশা বেঁচে থাকবে না। তবে তামিম একাদশের জয়ে, টুর্নামেন্টের সবগুলো দলই জয় দিয়ে লিগ পর্ব শেষ করবে। সেক্ষেত্রে রান রেটের উপর নির্ভর করবে কোন দু’টি দল ফাইনাল খেলবে।

জটিল সমীকরনে ম্যাচটি অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ হয়ে পড়েছে। লিগ পর্বে তিন ম্যাচে অংশ নিয়ে দু’টিতে হেরেছে ও একটিতে জিতেছে তামিম একাদশ। তাদের দু’টি হারই মাহমুদউল্লাহ একাদশের বিপক্ষে।

মাহমুদউল্লাহ একাদশের কাছে লিগ পর্বের প্রথম ম্যাচে ৫ উইকেটে ও দ্বিতীয় পর্বে ৪ উইকেটে হারে তামিম একাদশ। নাজমুল একাদশের বিপক্ষে ৪২ রানের জয়টিই একমাত্র সাফল্য তামিম একাদশের।

নাজমুল একাদশও তিন ম্যাচ খেলেছে। মাহমুদউল্লাহ একাদশের বিপক্ষেই দু’টি জয় তাদের। তাদের একটি হার তামিম একাদশের বিপক্ষে। তামিম একাদশের বিপক্ষে জয়ের ধারাটি অব্যাহত রাখতে চায় তারা।  

প্রথম ম্যাচে বাজে ব্যাটিং পারফরমেন্স ছিলো তামিম একাদশের। মাহমুদউল্লাহ একাদশের বিপক্ষে ১০৬ রানে অলআউট হয় তারা। ফলে ৫ উইকেটে হার নিয়ে মাঠ ছাড়ে তামিম একাদশ।  

লিগ পর্বের দ্বিতীয় ম্যাচে মাহমুদউল্লাহ একাদশের বিপক্ষে ব্যাট হাতে সম্মানজনক স্কোর করতে পারে তামিম একাদশ। প্রাথমিক ধাক্কা সামলে ৯ উইকেটে ২২১ রান তুলে তারা।

ব্যাটসম্যানরা ব্যর্থ হলেও, প্রত্যক ম্যাচেই ভালো করেছে তামিম একাদশের বোলাররা। তরুণ শরিফুল ইসলামের সঙ্গে অভিজ্ঞ মুস্তাফিজুর রহমান ও সাইফুদ্দিনের সমন্বয়ে পেস আক্রমন আশানুরূপ ফল করেছে।

মাহমুদউল্লাহ একাদশের বিপক্ষে ৮ উইকেটে ২২১ রান করেও ম্যাচ জিততে পারেনি তামিম একাদশ। সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়ে দলকে জয়ের স্বাদ দিয়েছেন মাহমুদউল্লাহ একাদশের অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ।

মাহমুদউল্লাহ একাদশের বিপক্ষে নিজেদের প্রথম ম্যাচে ১৯৭ রানের টার্গেট স্পর্শ করে ফেলে নাজমুল একাদশ। ৪ উইকেটের জয়ে টুর্নামেন্ট শুরু করেছিলো তারা।

তবে পরের ম্যাচে তামিম একাদশের কাছে ৪২ রানে হারে নাজমুল একাদশ। কিন্তু নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে মাহমুদউল্লাহ একাদশের বিপক্ষে আফিফ হোসেনের ৯৮ রানের দুর্দান্ত ইনিংসের সুবাদে ৮ উইকেটে ২৬৪ রান করে নাজমুল একাদশ। আফিফের ৯৮ রান এখন পর্যন্ত টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ রান। ঐ ম্যাচে বল হাতে জ্বলে উঠে নাজমুল একাদশের বোলাররা। প্রতিপক্ষকে ১৩৩ রানে অলআউট করে দিয়ে ১৩১ রানের বড় জয় তুলে নেয় নাজমুল একাদশ।  

টুর্নামেন্টে মাত্র একবার দলীয়ভাবে ২০০ রান করতে পেরেছিলো মাহমুদউল্লাহ একাদশ। তাই অন্য দু’দলের চেয়ে রান রেটে বেশ এগিয়ে  রয়েছে তারা।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএস