কে এই তেওয়াতিয়া? 

কে এই তেওয়াতিয়া? 

স্পোর্টস ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৩:০৫ ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০  

রাহুল তেওয়াতিয়া

রাহুল তেওয়াতিয়া

রোববার রাতে অসাধারণ এক ইনিংসের মাধ্যমে সবাল আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে চলে এসেছেন রাজস্থান রয়্যালসের অলরাউন্ডার রাহুল তেওয়াতিয়া। একই ম্যাচে সম্পূর্ণ ভিন্ন দুই রূপে দেখা গেছে তাকে। শেষ দিকে তার ধ্বংসাত্মক রূপের জন্যই অবিশ্বাস্য এক ম্যাচ জিতেছে রাজস্থান। এর পর অনেকের মনেই প্রশ্ন জেগেছে, কে এই তেওয়াতিয়া? 

রোববার ২৭ বছর বয়সী তেওয়াতিয়া যখন পাঞ্জাবের রেকর্ড রান তাড়া করতে রবিন উথাপ্পারও আগে চারে ব্যাটিং করতে নামেন তখন অনেকেরই ভ্রু কুঁচকে যায়। এমনকি তার খেলা প্রথম ১৯টি বল সবার বিরক্তির পরিমাণই বাড়িয়েছে। বল যেন চোখেই দেখছিলেন না। একের পর এক ডটের ফলে এক পর্যায়ে অপর প্রান্তের সাঞ্জু স্যামসন তাকে স্ট্রাইকই দিতে চাননি। অথচ ম্যাচ শেষে তিনিই হয়ে যান অন্যতম নায়ক।  

ভারতের উত্তর প্রদেশের হরিয়ানার সিহি গ্রামে ১৯৯৩ সালের ২০ মে জন্মগ্রহণ করেন তেওয়াতিয়া। ২০ বছর বয়সে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে তার অভিষেক হয়। রাজ্য দলের হয়ে খুব একটা খেলার সুযোগ পাননি তিনি। এ পর্যন্ত খেলেছেন মাত্র ৭ ম্যাচ। 

লিস্ট এ ক্রিকেটে ২১ ম্যাচে ১০০-এর বেশি স্ট্রাইক রেটে ৪৮৪ রান করেছেন তেওয়াতিয়া। বল হাতে শিকার করেছেন ২৭ উইকেট। পাঞ্জাবের বিপক্ষে রোববারের ম্যাচটি ছিল তার ৫০তম টি-টোয়েন্টি। এই ফরম্যাটে দেড়শর বেশি স্ট্রাইক রেটে ৬৯১ রান করেছেন তিনি, গড় ২৭.৬৪। এছাড়া ঝুলিতে আছে ৩৩ উইকেট। 

চেন্নাইয়ের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে দুই উইকেট শিকারের পর কানে হাত দিয়ে তেওয়াতিয়ার ট্রেডমার্ক উদযাপন নিয়েই চলতি আসরে প্রথম কথা উঠেছিল। ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (আইপিএল) তার যাত্রা শুরু হয় ২০১৪ সালে। সেবার তাকে ১০ লাখ রুপিতে দলে ভিড়িয়েছিল রাজস্থান রয়্যালস। সেই আসরে খুব একটা সুযোগ পাননি তিনি। তিন ম্যাচ খেলে ব্যাট হাতে ১৬ রান ও বল হাতে ৩ উইকেট ছিল তার অর্জন। পরের মৌসুমে রয়্যালসের হয়ে মাত্র এক ম্যাচ খেলার সুযোগ পান এই অলরাউন্ডার। 

২০১৬ আইপিএলে দল পাননি রাহুল তেওয়াতিয়া। ২০১৭ সালে ভিত্তিমূল্যেই তাকে ডেকে নেয় কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব। তবে এবারও তিন ম্যাচের বেশি খেলার সুযোগ পাননি এই অলরাউন্ডার। ১৯ রান ও তিন উইকেট শিকার করেন এই তিনি। 

২০১৮ সালের আইপিএল নিলামে ৩ কোটি রুপিতে তেওয়াতিয়াকে দলে ভেড়ায় দিল্লি ক্যাপিটালস। সেবার তাকে দলে নেয়ার জন্য দিল্লির সঙ্গে রীতিমতো যুদ্ধ করেছে বিরাট কোহলির রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরু ও সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ। 

আইপিএলের সেই মৌসুমে দিল্লির জার্সিতে ৮ ম্যাচ খেলেন তেওয়াতিয়া। ব্যাট হাতে ৫০ রান ও বল হাতে ৬ উইকেট কাউকে মুগ্ধ করার পক্ষে যথেষ্ট ছিল না। এরপর গত মৌসুমে দিল্লির হয়ে আরো পাঁচটি ম্যাচে মাঠে নেমেছিলেন এই হরিয়ানা অলরাউন্ডার। 

গত বছর অনুষ্ঠিত চলতি আসরের নিলামে দিল্লির কাছ থেকে তেওয়াতিয়াকে কিনে নেয় রাজস্থান রয়্যালস। নিজের প্রথম ঠিকানায় ফিরেই যেন নিজেকে নতুনভাবে আবিষ্কার করেছেন তিনি। 

শেলডন কটরেলকে এক ওভারে পাঁচটি ছয় মেরে যেন সমালোচকদেরই জবাব দিলেন তেওয়াতিয়া। অসাধারণ এক ইনিংসের পর এখন থেকে যে তার ওপর স্পটলাইট থাকবে সে বিষয়ে সন্দেহ নেই। 

ডেইলি বাংলাদেশ/এএল