দুই নক্ষত্রের সংঘর্ষ, যা দেখা গেল ছবিতে

দুই নক্ষত্রের সংঘর্ষ, যা দেখা গেল ছবিতে

বিজ্ঞান ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১২:১৬ ২২ জুলাই ২০২২  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

সারা পৃথিবীকে যেন অস্তিত্ব সংকটে ফেলে দিয়েছে জেমস ওয়েব স্পেস টেলিস্কোপ! বিশ্বের বৃহত্তম এবং সবচেয়ে শক্তিশালী স্পেস টেলিস্কোপ এই জেমস ওয়েব স্পেস টেলিস্কোপ। এটির মাধ্যমে জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা দুটি মৃত নক্ষত্রের সংঘর্ষের ছবি প্রথমবারের মতো তুলতে পেরেছেন।

মৃত নক্ষত্রে সংঘর্ষের সময় যে বিশাল আলোকরশ্মির বিচ্ছুরণ ঘটতে থাকে তা পৃথিবী থেকে কয়েক রাত ধরা পড়তে পারে। সে জন্য টেলিস্কোপটি নজরদারি বাড়িয়ে দিয়েছে। মৃত নক্ষত্রের (নিউট্রন স্টার) সংঘর্ষের এমন ছবির মাধ্যমে মহাবিশ্বকে আরো ভালোভাবে জানার সুযোগ পাচ্ছেন বিজ্ঞানীরা।

জ্যোতিপদার্থবিজ্ঞানের অধ্যাপক জো লিম্যানের ধারণা এমন, সংঘর্ষের ফলে ছড়িয়ে ছিটিয়ে পড়া বিভিন্ন রকমের কঠিন ধাতু হাজার হাজার বছর ধরে অন্য আরেকটি নক্ষত্র বা গ্রহ তৈরিতে মূল ভূমিকা রাখে।

জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা বলেন, ‘সংঘর্ষের সময় গতি বিবেচ্য বিষয়। পুরোপুরি বিলীন বা মিলিয়ে যাওয়ার আগে আমরা সেখানে অনেক কিছুকে খুব অল্প সময়ের জন্য দেখতে পেয়েছিলাম।’

এমন নিউট্রন স্টারগুলোর এত বেশি ভর যে এদের থেকে এক চা-চামচ উপাদানের ওজন হবে চার হাজার টনের সমান।

২০২১ সালের ২৫ ডিসেম্বর জেমস ওয়েব টেলিস্কোপটি মহাকাশে পাঠানো হয়। এটি মূলত মহাকাশের গভীরে অতীতের বিষয়গুলো তুলে আনার লক্ষ্যে নির্মাণ করা হয়েছে। এ ছাড়া আদি নক্ষত্র ও ছায়াপথগুলো নিয়েও গবেষণা করার লক্ষ্য এটির। তবে ইনফ্রারেড পর্যবেক্ষণ কেন্দ্র হিসেবে টেলিস্কোপটি আরও নানা কাজে ব্যবহার করা যেতে পারে। বিজ্ঞানীরা টেলিস্কোপটি ব্যবহার করে সৌরজগতের বিভিন্ন বিষয় জানতে পারবেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/এনকে