মানুষের মতোই নিজের ক্ষত নিজেই সারিয়ে তুলবে রোবট!

মানুষের মতোই নিজের ক্ষত নিজেই সারিয়ে তুলবে রোবট!

বিজ্ঞান ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৪:৫৯ ১২ জুন ২০২২  

ছবি: প্রতীকী

ছবি: প্রতীকী

প্রাণী কিংবা উদ্ভিদের মতো বংশবিস্তার বা ক্ষতস্থান নিরাময় করতে পারে না জড় পদার্থ। কিন্তু তেমনটাই যদি সম্ভব হয়? না, কল্পবিজ্ঞান নয়। এবার বাস্তবেই এমনটা করে দেখালেন গবেষকরা। সম্প্রতি, জাপানের বিজ্ঞানীরা তৈরি করলেন এক বিশেষ রোবট। যা নিজের ক্ষত সারিয়ে তুলতে পারে নিজেই। 

জাপানের গবেষকদের উদ্ভাবিত এই যন্ত্রমানব আদতে যেন অর্ধ মানব। তবে মানুষের শরীরে যন্ত্র জুড়ে দিয়ে এই রোবট বানানো হয়নি। বরং, কৃত্রিমভাবেই তৈরি করা হয়েছে এই রোবটের ত্বক। যার কোষ এবং কলাবিন্যাস হুবহু মানুষের ত্বকের মতোই। আরো ভালো করে বলতে গেলে ফাইব্রোব্লাস্ট এবং কেরাটিনোসাইট কোষের সংমিশ্রণে তৈরি এই ত্বক। যা মানবদেহের কোষের মতোই কোষ বিভাজনে সক্ষম। 

ডঃ সোজি টাকেউচির নেতৃত্বে এই গবেষণা চালিয়েছিলেন টোকিও বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞানীরা। সমগ্র যন্ত্রমানব নয়, কেবলমাত্র একটি রোবটিক হাতের ওপরেই চলেছে পরীক্ষা-নিরীক্ষা। আর তাতেই সাফল্য পান তারা। তাদের এই গবেষণাকে সম্প্রতি স্বীকৃতি দিয়েছে খ্যাতনামা বিজ্ঞান জার্নাল ‘ম্যাটার’-ও। কিন্তু কীভাবে এই অসম্ভবকে সম্ভব করে দেখালেন বিজ্ঞানীরা?

গবেষণাপত্রের প্রধান লেখক ড. টাকেউচি জানাচ্ছেন, এই রোবটিক ত্বক তৈরিতে ব্যবহৃত হয়েছে বায়ো-হাইব্রিড প্রযুক্তি। হাইড্রোজেল নামের এক বিশেষ কোলাজেন পদার্থের মধ্যে স্টেম কোষের বিকাশ ঘটিয়ে ত্বকের পুনরুৎপাদন করেছেন গবেষকরা। হাইড্রোজেলের মধ্যেই জন্ম নিয়েছে ফাইব্রোব্লাস্ট এবং কেরাটিনোসাইট। 

তবে শুধু পুনরুৎপাদন ক্ষমতাই নয়, এই রোবটিক কোষের প্রকৃতিও হুবহু মানুষের ত্বকের মতোই। রোবটিক হাতটির আঙুল ভাঁজ হলে, ভাঁজ পড়ে তার ত্বকেও। পাশাপাশি উষ্ণ পরিবেশে তা ঘামিয়ে যায়। বিস্ময়কর বললেও বোধ হয় কম বলা হয় এই ঘটনাকে।

আগামীদিনে চিকিৎসাক্ষেত্রে এই আবিষ্কার গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নেবে বলেই অনুমান গবেষকদের। পরবর্তীতে মানুষের ক্ষতসারিয়ে তুলতে ব্যবহৃত হতে পারে এই কৃত্রিম ত্বক। তাছাড়া রোবটের মধ্যে প্রাণ সঞ্চারের আশাও জাগাচ্ছে এই প্রযুক্তি। আক্ষরিক অর্থেই যেন কল্পবিজ্ঞানকে বাস্তবের মাটিতে নামিয়ে আনল এই আবিষ্কার।

ডেইলি বাংলাদেশ/কেবি