মঙ্গলগ্রহে ৭ শতাধিক বার ভূমিকম্প

মঙ্গলগ্রহে ৭ শতাধিক বার ভূমিকম্প

বিজ্ঞান ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৫:৫৭ ২৫ জুলাই ২০২১  

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

বিজ্ঞানীরা একের পর এক গবেষণা ও অভিযান পরিচালনা করে আসছেন মানুষের বসবাসের জন্য পৃথিবীর বিকল্প গ্রহের সন্ধানে। আর সেই সন্ধানের তালিকায় প্রথমেই যে গ্রহটিকে গুরুত্ব দিচ্ছেন বিজ্ঞানীরা, তা হলো মঙ্গলগ্রহ। যা লাল গ্রহ হিসেবেও পরিচিত।

প্রথমবারের মতো পৃথিবীবাসী মঙ্গলগ্রহের অভ্যন্তরে খুব ভা‌লোভা‌বে নজর দিতে পেরেছে। নাসার মহাকাশযান ইনসাইট ল্যান্ডার মঙ্গলের উপরিভাগের তথ্য বিশ্লেষণ করে এটা সম্ভব হয়েছে। এটি সাত শতাধিক ‘মার্সকোয়েক’ (ভূমিকম্প) রেকর্ড করেছে।

বিবরণে জানা গেছে, গ্রহটির একটি তরল কেন্দ্রস্থল, একটি শক্ত আবরণী এবং পৃথিবীর মতো তবে কিছুটা আলাদা ভূত্বক আছে। মঙ্গলে সৃষ্ট ভূমিকম্পের মধ্যে ৩৫টি এতোটাই শক্তিশালী ছিল যে, এগুলো নিয়ে আরও বিশ্লেষণ করা হচ্ছে।

বিজ্ঞানীদের অনুমান, মঙ্গলের ভূত্বক ২৪ থেকে ৭২ কিলোমিটার পুরু এবং এর কমপক্ষে দুটি স্তর রয়েছে। এর ম্যান্টলটি একক স্তরের শিলা দিয়ে গঠিত এবং ৪০০ থেকে ৬০০ কিলোমিটার পুরু। এর পরে আসছে কেন্দ্রস্থল। এটির স্তর অনেক বড়, যার ব্যাসার্ধ এক হাজার ৮৩০ কিলোমিটার।

এদিকে মঙ্গল গ্রহের ‘গেল ক্রেটার’ নামক একটি বিশাল গহ্বরে ২০১২ সাল থেকে কাজ করছে নাসার রোবটযান কিউরিসিটি রোভার। এই রোভারের একটি যন্ত্রাংশ ওই এলাকার আশেপাশে মিথেন গ্যাসের পরিমাণ পরিমাপের কাজ করছে। এটি ৬ বার মিথেনের সন্ধান পেয়েছে এবং উৎসও শনাক্ত করা গেছে।

নতুন এই আবিষ্কার বিজ্ঞানী মহলে তুমুল শোরগোল ফেলেছে। কারণ পৃথিবীতে প্রায় সব মিথেনেরই জৈবিক উৎস রয়েছে। তবে ভূমিকম্পের বিষয়টিও ভাবাচ্ছে বিজ্ঞানীদের!

ডেইলি বাংলাদেশ/এনকে