হাওয়াই দ্বীপপুঞ্জ থেকে দেখা গেল মহাবিশ্বের প্রাচীনতম ছায়াপথ

হাওয়াই দ্বীপপুঞ্জ থেকে দেখা গেল মহাবিশ্বের প্রাচীনতম ছায়াপথ

বিজ্ঞান ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৪:৫৭ ৮ জানুয়ারি ২০২১  

মহাবিশ্বের প্রাচীনতম ছায়াপথ। ফাইল ছবি

মহাবিশ্বের প্রাচীনতম ছায়াপথ। ফাইল ছবি

মহাজাগতিক বিষয় নিয়ে বিশ্ববাসীর আগ্রহের কমতি নেই। বিজ্ঞানীরাও প্রতিনিয়ত নতুন নতুন বিষয় সামনে আনছেন। তাতেই বাড়ছে রহস্য! অনেকে জানতে চান, কীভাবে সৃষ্টি হল মহাবিশ্ব? বিজ্ঞানের মতে, আজ থেকে ১৩ দশমিক ৭৫ বিলিয়ন বছর আগে একটি বিগ ব্যাং বা মহাপ্রলয়ের মাধ্যমে মহাবিশ্বের সৃষ্টি হয়েছে।

বিগ ব্যাং থিওরির কথা জানলেও মহাবিশ্বের অন্ধকার সম্পর্কে গবেষকরা আরো তথ্য অনুসন্ধান করতে চান। কোন ছায়াপথ সবার আগে ছিল। সেখানে কি ছিল তা নিয়ে কৌতুহলের শেষ নেই।

সবচেয়ে প্রাচীন এবং দূরের একটি ছায়াপথ সম্পর্কে সম্প্রতি নতুন তথ্য পেয়েছেন গবেষকরা। টোকিও বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর নবুনারি কাসিকাওয়া এ বিষয়ে তার ধারণা ব্যক্ত করেছেন। তার মতে, ডার্ক এজ শুরু হয়েছিল প্রায় ৩৭৯ হাজার বছর আগে। বিগ ব্যাং হয়েছিল তারও প্রায় ১ বিলিয়ন বছর পরে।

গবেষকরা মনে করেন সূর্যের কারণে মহাবিশ্বের এই প্রাচীনতম ছায়াপথটি সহজে দেখা যায়নি। শক্তিশালী এক দূরবীন প্রাচীন এই ছায়াপথের সন্ধান পেতে সাহায্য করেছে। এই ছায়াপথের একটি বৈশিষ্ট্য হিসাবে তিনি বলেছেন, নিজের কাছে আসা যে কোনো ছায়াপথকে সে অতি সহজেই কাছে টেনে নেয়। ফলে সেই ছায়াপথের অস্বিস্ত থাকে না। এভাবেই এই ছায়াপথটি নিজেকে এত বছর ধরে টিকিয়ে রেখেছে।

অনুমান করা হচ্ছে আমাদের ছায়াপথ থেকে এই প্রাচীন ছায়াপথের দূরত্ব প্রায় ১৩ দশমিক ৪ বিলিয়ন আলোকবর্ষ। তবে এই দূরত্ব আরো বেশি হতে পারে বলেও মনে করছেন মহাকাশ গবেষকরা।

হাওয়াই দ্বীপপুঞ্জের পাশে একটি বিশেষ ক্ষমতাশালী দূরবীন বসানো হয়েছিল। সেখান থেকে এই ছায়াপথকে দেখা সম্ভব হয়েছে। ২০২১ সালের ৩১ অক্টোবর আরো একটি শক্তিশালী দূরবীন আবিস্কার করা হবে। সেটা দিয়ে এই ছায়াপথটিকে আরো ভালভাবে দেখা যাবে মনে করছেন গবেষকরা।

ডেইলি বাংলাদেশ/এনকে