মহাকাশে কীভাবে মল-মূত্র ত্যাগ করেন নভোচারীরা, দেখুন নাসার ভিডিওতে

মহাকাশে কীভাবে মল-মূত্র ত্যাগ করেন নভোচারীরা, দেখুন নাসার ভিডিওতে

বিজ্ঞান ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ২০:৪৫ ১৪ অক্টোবর ২০২০   আপডেট: ২১:০৪ ১৪ অক্টোবর ২০২০

মহাকাশে টয়লেট-প্রতীকী ছবি।

মহাকাশে টয়লেট-প্রতীকী ছবি।

মহাকাশযানে নতুন টয়লেট বসাতে ২৩ মিলিয়ন মার্কিন ডলার খরচের খবর আলোড়ন সৃষ্টি করেছিল। তখন টয়লেটটির মল-মূত্র ত্যাগের ব্যবস্থা নিয়ে সংবাদমাধ্যমে একটু বেশিই শিরোনাম হয়। এবার সেই রহস্যগুলো ভিডিও-এর মাধ্যমে আগ্রহীদের জানিয়েছে ন্যাশনাল এয়ারোনটিস অ্যান্ড স্পেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (নাসা)।

সম্প্রতি নিজেদের টুইটার হ্যান্ডেলে এক ভিডিও পোস্ট করেছে নাসা। সেখানে নভোচারী ক্রিস্টোফার ক্যাসিডি কীভাবে মহাকাশযানের টয়লেট কাজ করে, কীভাবেই বা মল ও মূত্র ত্যাগ করতে হয়, তা ধাপে ধাপে বুঝিয়ে দিয়েছেন।

ক্যাসিডি বলেন, মহাকাশযানের টয়লেটকে বলা হয় ওয়েস্ট অ্যান্ড হাইজিন কম্পার্টমেন্ট। অনেকটা ট্রেনের টয়লেটের মতো দেখতে। কিন্তু খুবই ছোট, একজন মহাকাশচারী সেখানে সামান্য নড়াচড়া করতে পারবেন৷ 

ক্যাসিডি ভিডিওতে দেখিয়েছেন যে, এ হেন ওয়েস্ট অ্যান্ড হাইজিন কম্পার্টমেন্টের দেয়ালে কিছু বোতাম আটকানো একটা প্যানেল রয়েছে। সেখানে তিনটি বোতাম যখন ইংরেজি V অক্ষরের মতো আকারে জ্বলে ওঠে, তখনই টয়লেট নভোচারীর মূত্রত্যাগের জন্য তৈরি বলে বোঝা যায়। এরপর একটা পাইপের সঙ্গে আটকানো ফানেলের মুখে প্রস্রাব ত্যাগ করতে হয়!

মলত্যাগের ব্যবস্থা কিছুটা আমাদের চেনা পদ্ধতি। কমোডের মতোই অনেকটা। কিন্তু সেখানে কমোডের বদলে রাখা থাকে একটা পাত্র। তার উপরে থাকে বসার জায়গা। বড় জোর পাঁচ ইঞ্চির মতো চওড়া গর্তের ভেতরে রাখা থাকে একটা থলি। মলত্যাগের পর সেই থলি আর নিজেকে পরিষ্কার করার টয়লেট পেপার একসঙ্গে ফেলে দিতে হয়। পরের জনের জন্য নতুন একটা থলি পরিয়ে রাখতে হয়!

নাসা সাফ জানায়, এক নভোচারীকে সব চেয়ে বেশি শুনতে হয় যে, প্রকৃতির ডাকে কী ভাবে সাড়া দিতে হয়। মানুষের মনের এই প্রশ্ন জাগতেই পারে।

তাদেরকে তো সহজে বুঝানো যাবে না যে, মহাকাশে মাধ্যাকর্ষণ শক্তি কাজ করে না, যত জোরেই চিৎকার করা হোক না কেন কানে আওয়াজ আসে না৷

>>ভিডিও দেখতে এখানে ক্লিক করুন<< 

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকেএ