পবিত্র হজের খুতবা বাংলায় সরাসরি শুনতে ক্লিক করুন

পবিত্র হজের খুতবা বাংলায় সরাসরি শুনতে ক্লিক করুন

ধর্ম ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৪:৪০ ১৯ জুলাই ২০২১  

শায়েখ ড. বান্দার বালিলা। ছবি: সংগৃহীত

শায়েখ ড. বান্দার বালিলা। ছবি: সংগৃহীত

‘লাব্বাইক, আল্লাহুম্মা লাব্বাইক। লাব্বাইক, লা শারিকা লাকা লাব্বাইক। ইন্নাল হামদা, ওয়াননি’মাতা, লাকা ওয়ালমুলক, লা শারিকা লাক...।’ এমন মধুর ধ্বনি-প্রতিধ্বনিতে পবিত্র আরাফাতের পাহাড়ঘেরা ময়দান ছাপিয়ে আকাশ-বাতাস মুখর ও প্রকম্পিত হচ্ছে। সেখানে আজ পালিত হচ্ছে পবিত্র হজ। বাংলাদেশ সময় বিকেল ৩টায় শুরু হবে হজের খুতবা।

আরাফাত ময়দানে মসজিদে নামিরা থেকে হজের খুতবা পাঠ করবেন কাবা শরীফের ইমাম ও খতিব শায়খ ড. বান্দার বালিলাহ। বাংলাসহ ১০টি ভাষায় হজের খুতবা অনুবাদ করে প্রচার করা হবে। প্রথমবারের মতো খুতবা বাংলা অনুবাদ করবেন মক্কা ইসলামিক সেন্টারের কর্মরত বাংলাদেশের কক্সবাজার জেলার মাওলানা আ ফ ম ওয়াহিদুর রহমান।

আরাফাতের ময়দান থেকে হজের খুতবা সরাসরি বাংলায় শুনতে এখানে ক্লিক করুন।

শায়েখ ড. বান্দার বালিলা মক্কার বিশ্ববিখ্যাত ইউনিভার্সিটি উম্মুল কুরা থেকে গ্রাজুয়েশন সম্পন্ন করেন। এরপর একই ইউনিভার্সিটি থেকে ইসলামি আইন নিয়ে মাস্টার ডিগ্রি সম্পন্ন করেন। তিনি বিশ্ববিখ্যাত মদিনা ইসলামি ইউনিভার্সিটির শরীয়া অনুষদ থেকে ইসলাসিক আইন নিয়ে ডক্টরেট করেন।

২০১৩ সাল থেকে তিনি মসজিদ আল-হারামে ইমামতির দায়িত্ব পালন করে আসছেন। তায়েফ ইউনিভার্সিটিতে সহকারী অধ্যাপক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। ২০১৯ সাল থেকে মসজিদ আল-হারামে খতিব হিসেবে দায়িত্ব পান বান্দার বালিলা। ২০২০ সালের রবিউল আউয়াল মাসে সৌদি আরবের সিনিয়র স্কলার কাউন্সিলের সদস্য হিসেবে মনোনিত হন তিনি।

এদিকে আ ফ ম ওয়াহীদুর রহমান কক্সবাজার জেলার রামু উপজেলার গর্জনিয়া পূর্ব‌ বোমাঙখিল গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি বর্তমানে সৌদি আরবে মক্কা উম্মুল কুরা বিশ্ববিদ্যালয়ে পিএইচ ডি গবেষণারত আছেন। তিনি ১৯৯৮ সালে বাংলাদেশের প্রখ্যাত দ্বীনি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ঢাকার তামিরুল মিল্লাত মাদ্রাসা থেকে হাদিস বিভাগে কামিল ও ২০০০ সালে ঐতিহ্যবাহী মাদ্রাসা-ই-আলিয়া ঢাকা থেকে কামিল তাফসীর বিভাগে চমৎকার ফলাফল নিয়ে উত্তীর্ণ হন।

জনাব আ ফ ম ওয়াহীদুর-রহমান রাজকীয় সৌদি সরকারের যুগান্তকারী পদক্ষেপ পৃথিবীর বিভিন্ন ভাষায় ‘খুতবাতুল আরাফার’ (হজ্বের খুতবা) সম্প্রচার প্রকল্পে বাংলা অনুবাদক ও ভাষ্যকার হিসেবে ২০২০ সাল থেকে নিযুক্ত হয়েছিলেন। অনুরূপভাবে ২০২১ সালের জন্যও পুনরায় দায়িত্বপ্রাপ্ত হয়েছেন তিনি।

ডেইলি বাংলাদেশ/এনকে