স্বপ্নের পদ্মাসেতু ছুঁয়ে দেখতে সাইকেল চালিয়ে রওনা দিয়েছেন মোকসেদ আলী

স্বপ্নের পদ্মাসেতু ছুঁয়ে দেখতে সাইকেল চালিয়ে রওনা দিয়েছেন মোকসেদ আলী

যশোর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৭:১৫ ২২ জুন ২০২২   আপডেট: ১৭:২৯ ২২ জুন ২০২২

স্বপ্নের পদ্মা সেতু স্বচক্ষে দেখতে সাইকেল চালিয়ে রওনা দিয়েছেন মোকসেদ আলী। ছবি: সংগৃহীত

স্বপ্নের পদ্মা সেতু স্বচক্ষে দেখতে সাইকেল চালিয়ে রওনা দিয়েছেন মোকসেদ আলী। ছবি: সংগৃহীত

যশোরের বেনাপোল পৌরসভার পোড়াবাড়ি গ্রাম থেকে স্বপ্নের পদ্মাসেতু স্বচক্ষে দেখতে সাইকেল চালিয়ে রওনা দিয়েছেন মোকসেদ আলী।

মোকসেদ আলী পোড়াবাড়ি গ্রামের মৃত পাতলাই সরদারের ছেলে। বাঙালির স্বপ্ন ও আবেগের এই পদ্মাসেতু উদ্বোধন অনুষ্ঠানে শামিল হয়ে তিনি ইতিহাসের সাক্ষী হয়ে থাকতে চান। বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলাকে বিশ্বের বুকে আরো একবার মাথা উঁচু করে দেওয়া দৃশ্যমান এই পদ্মাসেতু ছুঁয়ে দেখতে নিজের ব্যবহারের পুরাতন সাইকেল নিয়ে তিনি রওনা হয়েছেন।

জানা যায়, ২০ জুন সোমবার ভোর ৫টা ৩০ মিনিটে ফজরের নামাজ শেষ করে যাত্রা করেন মোকসেদ। তিনি সাইকেল চালিয়ে এরই মধ্যেই পদ্মাসেতুর খুব কাছেই অবস্থান করছেন বলে জানা গেছে।

মুক্তিযোদ্ধা সন্তান ফারুক হোসেন উজ্জ্বল বলেন, এই সেতু শুধু বেনাপোলবাসীর নয় সমস্ত বাঙালি ও বাংলার অদম্য স্বপ্ন। ‘পদ্মা বহুমুখী সেতু’ উদ্বোধন কোটি হৃদয়ের আশা আকাঙ্ক্ষার বাস্তব প্রতিফলন। এই সেতু উদ্বোধনের প্রতীক্ষায় এমন কোটি কোটি মোকসেদ তার জ্বলন্ত উদাহরণ। বেনাপোলবাসীর পক্ষ থেকে তার সুস্থতা কামনা করছি এবং তিনি তার স্বপ্ন পূরণ করে ভালো ভাবে ফিরে আসুক সেই কামনা করি।

মোকসেদ আলী জানান, স্বপ্নের পদ্মা সেতু থেকে মাত্র ২৫ কিলোমিটার দূরে আছি। আমার সাইকেল পুরানো হলে কী হবে খুব চলে। আমার বহু দিনের স্বপ্ন আমি সামনে দাঁড়িয়ে স্বচক্ষে আমার নিজের টাকায় বানানো পদ্মা সেতু দেখব।

তিনি বলেন, ‘আমি অশিক্ষিত মানুষ তেমন কথা বলতে পারি না, আমি শুধু দোয়া করি প্রধানমন্ত্রী যেন আরো অনেক দিন বেঁচে থাকেন’।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকে