স্বৈরতন্ত্রের চর্চায় দিনদিন একঘরে হয়ে পড়ছে বিএনপি

স্বৈরতন্ত্রের চর্চায় দিনদিন একঘরে হয়ে পড়ছে বিএনপি

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৩:৪৭ ২১ মে ২০২২   আপডেট: ১৪:৪৪ ২১ মে ২০২২

বিএনপির লোগো- ফাইল ফটো

বিএনপির লোগো- ফাইল ফটো

গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়া বাদ দিয়ে অনেকটা স্বৈরতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় নেতা নির্বাচিত করায় অন্যান্য নেতাদের মতামত প্রায়ই উপেক্ষিত থাকে বিএনপিতে। অবমূল্যায়িত হওয়ায় নেতারা আর স্বপ্রণোদিত হয়ে দলের ভালোর জন্য পরামর্শ দিতে চান না। এতে নতুন ধারণা ও চিন্তা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে দলটি। এছাড়া স্বৈরতন্ত্র চর্চার কারণে রাজনৈতিক অঙ্গনে দিনদিন একঘরে হয়ে পড়ছে বিএনপি।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, রাজনৈতিক চরিত্র হারিয়ে এক ধরনের ব্যক্তিকেন্দ্রিক সংগঠনে পরিণত হয়েছে বিএনপি। জনগণের কথা ভাবার পরিবর্তে দলের নেতাকর্মীরা এখন সিন্ডিকেটের মতো আচরণ করছেন।

তারা আরো বলেন, মূলত বিএনপি হলো পারিবারিক সংগঠন। খালেদা জিয়া ও তারেক রহমান এর মালিক। তাদের ইশারায় দলের নেতারা উঠবস করেন।

সদ্য বিএনপি ছেড়ে আসা একজন নেতা বলেন, বিএনপিতে গণতন্ত্রের লেশমাত্র নেই। ফলে প্রতিবার গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিতে ভুল করে দলটি। যে দল ব্যক্তি স্বার্থের বাইরে যেতে পারে না, যে দলে স্বতন্ত্র কোনো চিন্তার মূল্য নেই, সেই দল সিদ্ধান্তহীনতায় ভুগবে- এটাই স্বাভাবিক।

রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা বলেন, বিএনপির রাজনীতিতে পরিবারতন্ত্র ও গোষ্ঠীতন্ত্র জেঁকে বসেছে। মূলত এ কারণেই বিএনপি সময় মতো সম্মেলন করতে চায় না। পাশাপাশি দলটিতে গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় নেতা নির্বাচন করা হয় না।

তারা আরো বলেন, দলের অভ্যন্তরে গণতন্ত্র চর্চা ও গবেষণার অভাবে পরনির্ভরশীল হয়ে পড়েছে বিএনপি। গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় বারবার ব্যর্থতার পরিচয় দেওয়ায় গণতান্ত্রিক মহলে দলটি প্রায় একঘরে হয়ে গেছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এএএম/জেডআর/এইচএন