প্রথমবার ভারত সফরে আসছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন

প্রথমবার ভারত সফরে আসছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৫:৩৭ ১৭ এপ্রিল ২০২২   আপডেট: ১৫:৪৫ ১৭ এপ্রিল ২০২২

ছবি: বরিস জনসন ও নরেন্দ্র মোদি

ছবি: বরিস জনসন ও নরেন্দ্র মোদি

ভারত সফরে আসছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। দুই দেশের মধ্যে সম্পর্ক জোরদারে চলতি সপ্তাহেই এই সফরে আসবেন তিনি। প্রধানমন্ত্রী হিসেবে এটিই হবে বরিসের প্রথম ভারত সফর।

শনিবার (১৬ এপ্রিল) জনসনের কার্যালয় জানিয়েছে, সম্পর্ক আরও গভীর করতে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ভারত সফরে যাচ্ছেন। তিনি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে দুই দেশের ‘কৌশলগত প্রতিরক্ষা, কূটনৈতিক এবং অর্থনৈতিক অংশীদারিত্ব’ নিয়ে বিশদ আলোচনা করবেন।

একটি মুক্ত বাণিজ্য চুক্তি নিয়ে আলোচনায় অগ্রগতিও চাইবেন জনসন; ব্রেক্সিট পরবর্তী কৌশলের অংশ হিসেবে যুক্তরাজ্য ভারতের সঙ্গে এই চুক্তি করতে চাইছে।

তার দুইদিনের এই সফরে ইউক্রেন বিষয়ে দুই পক্ষের মতবিরোধ ছায়া ফেলতে পারে বলেও অনেকে মনে করছেন।

মস্কোর কাছ থেকে অস্ত্র কেনা ভারত যেন ইউক্রেইনে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের হামলার কড়া নিন্দা জানায়, তার জন্য পশ্চিমা দেশগুলো ব্যাপক তদবির করে যাচ্ছে।

আরো পড়ুন>> পশ্চিমা অস্ত্রবাহী ইউক্রেনীয় বিমান ভূপাতিত করার দাবি রাশিয়ার

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন কয়েকদিন আগে মোদিকে বলেছেন, রাশিয়া থেকে বেশি বেশি তেল কেনা ভারতের জন্য ভালো হবে না।

যুক্তরাজ্যের বাণিজ্যমন্ত্রীও গত মাসে ইউক্রেন নিয়ে ভারতের অবস্থানে হতাশা প্রকাশ করেছিলেন।

জনসনের কার্যালয় তার এবারের সফরে ইউক্রেন প্রসঙ্গ নিয়ে আলোচনা হবে কিনা, সে বিষয়ে আনুষ্ঠানিভাবে কিছু জানায়নি।

তবে একটি সূত্র বলছে, ভূরাজনৈতিক অন্যান্য প্রসঙ্গে পাশাপাশি জনসনের সফরে ইউক্রেন নিয়েও বিস্তারিত আলোচনা হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

জনসন বলেছেন, ভারত পৃথিবীর বড় অর্থনৈতিক শক্তিগুলোর একটি এবং যুক্তরাজ্যের ‘গুরুত্বপূর্ণ কৌশলগত অংশীদার’।

“আমাদের শান্তি ও সমৃদ্ধি যখন স্বৈরতান্ত্রিক দেশগুলোর হুমকির মুখে, গণতান্ত্রিক দেশ ও বন্ধুদের তথন এক থাকা জরুরি,” এক বিবৃতিতে বলেছেন যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী।

জনসনের গত বছরই ভারতে যাওয়ার কথা থাকলেও করোনাভাইরাস মহামারীর কারণে শেষ পর্যন্ত তা বাতিল করতে হয়েছিল।

সূত্র: য়টার্স

ডেইলি বাংলাদেশ/মাহাদী