ধর্ষণচেষ্টার পর কলেজছাত্রীর আত্মহত্যার ঘটনায় রহস্য!

ধর্ষণচেষ্টার পর কলেজছাত্রীর আত্মহত্যার ঘটনায় রহস্য!

বগুড়া প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১০:০৬ ১৬ এপ্রিল ২০২২  

ধুনট থানা ফাইল ছবি

ধুনট থানা ফাইল ছবি

বগুড়ার ধুনটে ধর্ষণচেষ্টার অপমান সইতে না পেরে এক কলেজছাত্রী বিষপান করে আত্মহত্যা করেছেন বলে থানায় মামলা দায়ের করেছে তার বাবা ফজলুল হক। মামলা দায়েরের পর অভিযুক্ত দুই যুবককে আটক করেছে পুলিশ। তবে প্রাথমিক তদন্তে মৃত্যুর কারণ সম্পর্কে তৈরি হয়েছে রহস্য।

বৃহস্পতিবার রাতে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা যান চিকিৎসাধীন ওই ছাত্রী। শুক্রবার মামলা দায়েরের পর অভিযুক্ত দু’জনকে গ্রেফতার করেছে থানা পুলিশ। 

মামলার এজাহারে নিহত কলেজছাত্রীর বাবা ফজলুল হক অভিযোগ করেন, গত মঙ্গলবার প্রতিবেশী বাবুল ও রফিকুল তার বাড়িতে ঢুকে মেয়েকে ধর্ষণের চেষ্টা করে। এ সময় তার চিৎকারে প্রতিবেশীরা এগিয়ে এলে সেখান থেকে সটকে পড়ে অভিযুক্তরা। এর কিছুক্ষণ পরই অপমানে ভুক্তভোগী ছাত্রী ঘরে থাকা কীটনাশক পান করে অসুস্থ হয়ে পড়ে। এরপর প্রথম তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এবং পরে বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হলে বুধবার তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজে স্থানান্তর করার পর বৃহস্পতিবার রাতে মারা যান ধুনটের স্থানীয় একটি ডিগ্রি কলেজের ওই ছাত্রী।

ধুনট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কৃপা সিন্ধু বালা জানান, ধর্ষণচেষ্টার কারণে তরুণী আত্মহত্যা করেছে এমন অভিযোগে মামলা নেয়া হয়েছে। অভিযুক্তদের আটকও করা হয়েছে। তবে প্রাথমিক তদন্তে জানা যায়, ঘটনার দিন রাস্তার সীমানা নিয়ে ওই ছাত্রীর পরিবারের সঙ্গে প্রতিবেশী রফিকুল ও বাবুলের বচসা হয়। এ সময় ওই ছাত্রী মোবাইলফোনে সেই ভিডিও ধারণ করছিল। 

এ নিয়ে পরে তার বাবা ফজলুল হক মেয়েকে বকাঝকাও করেন। এর অল্প সময় পরেই ঘটে বিষপানের ঘটনা। তদন্ত শেষে আত্মহত্যার নেপথ্য কারণ নিশ্চিত করা যাবে বলেও জানান এই পুলিশ কর্মকর্তা।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকে