রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা শুরু ২৫ জুলাই

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা শুরু ২৫ জুলাই

রাবি প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ০০:৩৪ ৮ এপ্রিল ২০২২   আপডেট: ০০:৩৬ ৮ এপ্রিল ২০২২

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে ভর্তি পরীক্ষা দিতে আসা শিক্ষার্থীদের একাংশ

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে ভর্তি পরীক্ষা দিতে আসা শিক্ষার্থীদের একাংশ

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক প্রথমবর্ষের ভর্তি পরীক্ষা ২৫ জুলাই শুরু করার প্রাথমিক সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। আগামী সোমবার (১১ এপ্রিল) রাবির ভর্তি পরীক্ষা কমিটির সভায় তা চূড়ান্ত করা হবে।

জানা যায়, এর আগে আগামীকাল শুক্রবার (৮ এপ্রিল) ভিসিদের সংগঠন বিশ্ববিদ্যালায় পরিষদের সভায় ভর্তি পরীক্ষা ২৫ এপ্রিল শুরুর বিষয়ে উপস্থাপন করবেন ভিসি অধ্যাপক গোলাম সাব্বির সাত্তার। এতে অন্য কোনো বিশ্ববিদ্যালয়ের আপত্তি না থাকলে পূর্ব নির্ধারিত সময়েই রাবির ভর্তি পরীক্ষা নেয়া হবে। যা রাবিতে অনুষ্ঠিত ১১ এপ্রিলের ভর্তি পরীক্ষা কমিটির সভায় চূড়ান্ত বলে অনুমোদন দেয়া হবে।

এই বিষয়ে জানতে চাইলে ভিসি অধ্যাপক গোলাম সাব্বির সাত্তার বলেন, আমাদের ভর্তি পরীক্ষার জন্য প্রাথমিকভাবে ২৫-২৭ জুলাই নির্ধারণ করা হয়েছে। আগামী সোমবার আমাদের ভর্তি কমিটির সভায় এই বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

এর আগে গত ৩১ মার্চ (বৃহস্পতিবার) বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম প্রশাসন ভবনে ভর্তি পরীক্ষা কমিটির এক সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় যেসব বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হয় তা হলো-

দ্বিতীয়বার ভর্তির সুযোগ
এবারের ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষায় দ্বিতীয়বার পরীক্ষা দেয়ার সুযোগ দিয়েছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। জানা যায়, করোনা ভাইরাসের প্রভাবে শিক্ষার্থীদের শিক্ষার ক্ষতি পুষিয়ে দেয়ার জন্য মূলত এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তারা।

থাকছে সিলেকশন পদ্ধতি
রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষায় গতবারের ন্যায় এবারও রাখা হয়েছে সিলেকশন পদ্ধতি। এই পদ্ধতিতে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীকে প্রথমে প্রাথমিক আবেদন করতে হবে। প্রাথমিক আবেদন থেকে শিক্ষার্থীর মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক ফলাফলের ভিত্তিতে মেধা তালিকা প্রকাশ করা হবে। প্রাথমিক আবেদনে উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীরা চূড়ান্ত আবেদনের জন্য মনোনিত হবে।

তিন ইউনিটে ভর্তি পরীক্ষা
গত বছরের ন্যায় এবারও তিনটি (এ, বি, সি) ইউনিটে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। প্রতিটি ইউনিটে চূড়ান্ত আবেদনকারী শিক্ষার্থীরা পরীক্ষায় বসতে পারবে।

বাড়ানো হয়েছে চূড়ান্ত আবেদন
গত বছরে প্রত্যেক ইউনিটে মাত্র ৪৫ হাজার শিক্ষার্থী চূড়ান্ত আবেদনের সুযোগ পেয়েছিলো। অর্থাৎ প্রতিটি ইউনিটের পরীক্ষায় বসেছিলো ৪৫ হাজার শিক্ষার্থী। এবার তা বাড়িয়ে ৭২ হাজারে করা হয়েছে। অর্থাৎ প্রতিটি ইউনিটে ৭২ হাজার শিক্ষার্থী চূড়ান্ত আবেদন সম্পন্ন শেষে পরীক্ষায় বসতে পারবে। গতবারের তুলনায় প্রতিটি ইউনিটে ২৭ হাজার শিক্ষার্থী বেশি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারবে।

প্রাথমিক আবেদনের সময়
ভর্তি পরীক্ষার প্রাথমিক আবেদন শুরু হবে আগামী ২৫ মে। চলবে ৯ জুন পর্যন্ত। নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের প্রাথমিক আবেদন সম্পন্ন করতে হবে। গত বছর প্রাথমিক আবেদন ফি ছিলো ৫৫ টাকা।

চূড়ান্ত আবেদনের সময়
প্রাথমিক আবেদন শেষে উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের চূড়ান্ত আবেদনের জন্য মনোনিত করা হবে। উত্তীর্ণ ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের চূড়ান্ত আবেদন শুরু হবে ১৫ জুন। চলবে ২৮ জুন পর্যন্ত। গত বছরে চূড়ান্ত আবেদনের ফি ছিলো ১ হাজার একশত টাকা।

ভর্তি পরীক্ষার সময়সূচি
আগামী ২৫-২৭ জুলাই ভর্তি পরীক্ষা নেয়ার প্রাথমিক সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। তবে চূড়ান্ত সময়সীমা আগামী সোমবার ভর্তি পরীক্ষা কমিটির সভায় শেষে জানা যাবে। ভর্তি পরীক্ষা সংক্রান্ত এখনো কোনো লিখিত বিজ্ঞপ্তি দেয়নি বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডএম