শীতে কাঁপতে থাকা আশিকুরের গায়ে কম্বল জড়িয়ে দিলেন ডিসি

শীতে কাঁপতে থাকা আশিকুরের গায়ে কম্বল জড়িয়ে দিলেন ডিসি

দিনাজপুর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৭:২২ ১১ জানুয়ারি ২০২২   আপডেট: ১৭:২২ ১১ জানুয়ারি ২০২২

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

আশিকুর রহমানের জন্মের একমাস পরেই রানা প্লাজা ধসে মারা যান বাবা সোহেল রানা। মা আয়েশা সিদ্দিকার অন্যত্র বিয়ে হওয়ায় তাদের একমাত্র সন্তান আশিকুর রহমান এখন দিনাজপুরের ইসলাম গাজী হাফিজিয়া মাদরাসার নূরানী বিভাগের ছাত্র। বাবা-মা দুজনই না থাকায় সেই এতিমখানা মাদরাসায় লেখাপড়া করছে। 

সোমবার দিবাগত রাত ৮টার দিকে টিনের ছাউনি দিয়ে এতিমখানার মাদরাসায় আশিকুর রহমান থর থর করে কাঁপছে- এমন খবর পাওয়ার পর দিনাজপুর জেলা প্রশাসক (ডিসি) খালেদ মোহাম্মদ জাকী কম্বল নিয়ে হাজির হন ইসলাম গাজী হাফেজিয়া মাদরাসায়। 

কম্বলসহ জেলা প্রশাসকের গাড়ি এতিমখানার মাদরাসা মাঠে প্রবেশের পর জেলা প্রশাসক সেই মাদরাসার শিক্ষকদের সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন। এরপর তিনি জানালেন, প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে তিনি কিছু শীতবস্ত্র মাদরাসায় অধ্যায়নরত ছাত্রদের মাঝে বিতরণ করতে চান। এ সময় মাদরাসার সব শিক্ষকরা জেলা প্রশাসকের উপহার সামগ্রী গ্রহণে স্বাচ্ছন্দে এগিয়ে আসেন।

আরো পড়ুন: দুই প্রতিষ্ঠানের দ্বন্দ্ব, সেবা দেবে কে 

জেলা প্রশাসক সব ছাত্রদের পর্যায়ক্রমে গায়ে কম্বল জড়িয়ে দেন। এ সময় আশিকুর রহমানের গায়েও কম্বল জড়িয়ে দেন তিনি। জেলা প্রশাসক খালেদ মোহাম্মদ জাকী বলেন, এতিম ও অসহায়দের ভালোবাসলে আল্লাহ অনেক খুশি হন। তোমরা কোরআনের পাখি, তোমাদের দোয়া দেশ ও জাতির জন্য মঙ্গলজনক।

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশএকইদিন শেখপুরা খ্রিস্টান পল্লীতে ও দিনাজপুর নিউ টাউন খলিলুল্লাহ হাফিজিয়া কারিয়ানা মাদরাসায় দুই শতাধিক কম্বল বিতরণ করেন। এ সময় তার সঙ্গে আরও উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) শরিফুল ইসলাম, দিনাজপুর সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মর্তুজা মুঈদ প্রমুখ।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএম