৪৯ কোটি টাকায় ময়মনসিংহে হচ্ছে ১০ সড়ক

৪৯ কোটি টাকায় ময়মনসিংহে হচ্ছে ১০ সড়ক

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৬:৪১ ২ জানুয়ারি ২০২২  

দুই ওয়ার্ডে ১০টি সড়কের নির্মাণ কাজ উদ্বোধন করেন ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মো. ইকরামুল হক টিটু

দুই ওয়ার্ডে ১০টি সড়কের নির্মাণ কাজ উদ্বোধন করেন ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মো. ইকরামুল হক টিটু

ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের (মসিক) দুটি ওয়ার্ডে প্রায় ৪৯ কোটি টাকা ব্যয়ে ১০টি সড়কের নির্মাণ কাজ শুরু হয়েছে। রোববার বেলা ১১টার দিকে নগরীর ৩২ ও ৩৩ নম্বর ওয়ার্ডে এসব উন্নয়ন কাজের উদ্বোধন করেন মেয়র মো. ইকরামুল হক টিটু।

সিটি কর্পোরেশনের চরকালীবাড়ি ময়লাকান্দা থেকে চৌধুরীবাড়ী পর্যন্ত বিসি সড়কসহ চরকালীবাড়ি অঞ্চলে ৭ টি সড়ক, চর তিনগাও মসজিদ থেকে শম্ভুগঞ্জ রেলস্টেশন পর্যন্ত আরসিসি রাস্তা, চর নীলক্ষিয়া পাকা রাস্তা থেকে চর গোবদিয়া খ্রিস্টানপাড়া পর্যন্ত বিসি সড়কের মোট দৈর্ঘ্য প্রায় ২৫ কিলোমিটার।

মেয়র টিটু বলেন, আমরা সমৃদ্ধির দিকে, কাঙ্খিত লক্ষ্যের দিকে ক্রমাগত এগিয়ে যাচ্ছি। ইউনিয়ন পরিষদ থেকে অন্তর্ভুক্ত হওয়া ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের নতুন ওয়ার্ডগুলোর অবকাঠামো ছিল অত্যন্ত নাজুক। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ময়মনসিংহবাসীকে সিটি কর্পোরেশন উপহার দিয়েছেন বলেই এখন এসব ওয়ার্ডের ব্যাপক উন্নয়ন করা সম্ভব হচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, ময়লাকান্দার আবর্জনা আর থাকবে না। আবর্জনাকে সম্পদে রূপান্তরের চেষ্টা করছি আমরা। এছাড়া, সম্প্রসারিত ওয়ার্ডগুলোতে এরই মধ্যে প্রায় ৪০০ কোটি টাকার কাজের টেন্ডার সম্পন্ন হয়েছে। শুধুমাত্র ৩২নং ওয়ার্ডের উন্নয়নেই ৮০ কোটি টাকা বরাদ্দ রাখা হয়েছে। এসব সড়ক ও ড্রেন ওয়ার্ডের নাগরিকদের জীবনমান ও যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নে ব্যাপক ভূমিকা রাখবে।

রাস্তা, ড্রেন ও সড়কবাতি স্থাপনে প্রয়োজনীয় ছাড় দেওয়ার জন্য সকলের প্রতি আহ্বান জানিয়ে মেয়র বলেন, নতুন এ ওয়ার্ডগুলো পরিকল্পিতভাবে গড়ে তোলার সুযোগ আছে। ছাড়ের মানসিকতাই এ প্রচেষ্টাকে সফল করে তুলতে পারে।

এ সময় ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের ৩২নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মো. আব্বাস আলী মণ্ডল, ৩৩নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মো. শাহজাহান মিয়া, সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলর ফারজানা ববি কাকলী, প্রধান প্রকৌশলী মো. রফিকুল ইসলাম মিঞা, নির্বাহী প্রকৌশলী জহুরুল হক, সহকারী প্রকৌশলী মো. আজহারুল হক প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর