জমির বিরোধে ভাবিকে পিটিয়ে হত্যা দেবরের

জমির বিরোধে ভাবিকে পিটিয়ে হত্যা দেবরের

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ২০:১৫ ১ জানুয়ারি ২০২২  

দৌলতপুর থানা: ফাইল ফটো

দৌলতপুর থানা: ফাইল ফটো

কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে শনিবার (১ জানুয়ারি) বিকেলে জমি-সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে ভাবিকে পিটিয়ে হত্যা করেছেন দেবর। উপজেলার মথুরাপুর ইউনিয়নের গোবরগাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন দৌলতপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এস এম জাবীদ হাসান।

মৃত ঐ নারীর নাম নাজমা আক্তার (৩৫)। তিনি দৌলতপুর উপজেলার মথুরাপুর ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডের গোবরগাড়া গ্রামের গিয়াস উদ্দিনের স্ত্রীর। তার এক ছেলে ও এক মেয়ে সন্তান রয়েছে।

পুলিশ, নিহতের পরিবার ও স্থানীয় সূত্র জানা গেছে, শনিবার বিকেলে পৈতৃক জমি ভাগাভাগি নিয়ে শত্রুতার জের ধরে গিয়াস উদ্দিনের সাথে তার আপন ছোট ভাই শাহীন ও তুহিনের ঝগড়া শুরু হয়। একপর্যায়ে শাহীন ও তুহিন বাঁশ দিয়ে গিয়াস উদ্দিনের স্ত্রী নাজমা আক্তারের মাথাসহ শরীরের বিভিন্ন জায়গায় আঘাত করে। এতে ঘটনাস্থলেই নাজমা আক্তারের মৃত্যু হয়।

নাজমা আক্তারের ছেলে মুস্তাকিন বলেন, পৈতৃক জমি ভাগাভাগি নিয়ে ২০১৪ সাল থেকে আমার বাবার (গিয়াস উদ্দিন) সঙ্গে চাচা শাহীন ও তুহিন উদ্দিনের বিরোধ শুরু হয়। বাড়ির সেই জমি নিয়ে আজ বিকেলে আমার মাকে বাঁশ দিয়ে মেরে হত্যা করে শাহীন ও তুহিন। আমি তাদের শাস্তি চাই।

দৌলতপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এস এম জাবীদ হাসান বলেন, জমি-সংক্রান্ত বিরোধের জেরে দেবরের লাঠির আঘাতে ভাবির মৃত্যু হয়েছে। মরদেহ উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। এ ঘটনায় মামলা হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচ