লঞ্চে অগ্নিকাণ্ড: সেই ট্রলারচালককে পুরস্কৃত করলেন এসপি

লঞ্চে অগ্নিকাণ্ড: সেই ট্রলারচালককে পুরস্কৃত করলেন এসপি

ঝালকাঠি প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৬:৪১ ২৯ ডিসেম্বর ২০২১   আপডেট: ১৬:৫৬ ২৯ ডিসেম্বর ২০২১

এমভি অভিযান-১০ লঞ্চের যাত্রীদের উদ্ধারকারী ট্রলারচালক মিলন খানের হাতে পুরস্কার তুলে দেন ঝালকাটিঠির এসপি ফাতিহা ইয়াসমিন

এমভি অভিযান-১০ লঞ্চের যাত্রীদের উদ্ধারকারী ট্রলারচালক মিলন খানের হাতে পুরস্কার তুলে দেন ঝালকাটিঠির এসপি ফাতিহা ইয়াসমিন

ঝালকাঠির সুগন্ধা নদীতে ঢাকা থেকে বরগুনাগামী এমভি অভিযান-১০ লঞ্চে অগ্নিকাণ্ডের পর নদীতে লাফিয়ে পড়া এবং নদী সাঁতরে তীরে ওঠা প্রায় ৩০০ যাত্রীকে বিনা ভাড়ায় পারাপার করা সেই ট্রলারচালককে পুরস্কৃত করেছেন পুলিশ সুপার ফাতিহা ইয়াসমিন।

বুধবার বেলা ১২টার দিকে নিজ কার্যালয়ে ডেকে এনে ট্রলারচালক মিলন খানের হাতে নগদ পাঁচ হাজার টাকা তুলে দেন তিনি।

এ সময় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) প্রশান্ত কুমার দে, সদর থানার ওসি খলিলুর রহমান ও পরিদর্শক (তদন্ত) সাইফুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।

পুলিশের সহায়তা পেয়ে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন মিলন খান। তিনি জানান, লঞ্চ দুর্ঘটনায় বিপদগ্রস্ত ৩০০ যাত্রীকে উদ্ধার ও বিনা ভাড়ায় নিরাপদে তীরে পৌঁছে দিয়েছেন। এজন্য অনেকেই তাকে ধন্যবাদ জানাচ্ছেন।

ঝালকাঠির পুলিশ সুপার ফাতিহা ইয়াসমিন বলেন, মিলন খান যে কাজটি করেছেন তা অত্যন্ত প্রশংসনীয়। আমি প্রথমে বিষয়টি গণমাধ্যমে দেখেছি। আগুনের খবর পেয়ে তিনি নিজের ট্রলার নিয়ে বিনা ভাড়ায় মানুষকে পারাপার করেছেন। এজন্য আমি জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে তাকে সামান্য শুভেচ্ছা উপহার দিয়েছি।

গত বৃহস্পতিবার রাত ৩টার দিকে ঝালকাঠির সুগন্ধা নদীতে চলন্ত এমভি অভিযান-১০ লঞ্চের ইঞ্জিন রুমে আগুন লাগে। আগুন মুহূর্তেই পুরো লঞ্চে ছড়িয়ে পড়ে। ঐ সময় যাত্রী ও স্টাফদের অনেকেই মাঝ নদীতে ঝাঁপিয়ে পড়ে সাঁতরে তীরে উঠে কোনোরকমে প্রাণ বাঁচান। তাদেরই নিজের ট্রলারে করে পারাপার করেছেন মিলন খান। ঐ দুর্ঘটনায় এখন পর্যন্ত ৪৫ জন নিহত ও শতাধিক যাত্রী দগ্ধ হন। এছাড়া এখনো প্রায় অর্ধশত যাত্রী নিখোঁজ রয়েছেন বলে জেলা প্রশাসন ও রেড ক্রিসেন্ট সূত্র জানিয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর