খালেদা জিয়ার মুক্তি ও চিকিৎসা: চাপ তৈরিতে ব্যর্থ বিএনপি

খালেদা জিয়ার মুক্তি ও চিকিৎসা: চাপ তৈরিতে ব্যর্থ বিএনপি

নিজস্ব প্রতিবেদক     ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৭:৪০ ১৩ ডিসেম্বর ২০২১   আপডেট: ১৭:৫৩ ১৩ ডিসেম্বর ২০২১

খালেদা জিয়া- ফাইল ফটো

খালেদা জিয়া- ফাইল ফটো

বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য রাজনৈতিকভাবে সীমিত পরিসরে সমাবেশ, বিক্ষোভ ও মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করলেও কার্যত কোনো জোরালো চাপ সৃষ্টি করতে পারেনি দলটি। 

গত দেড় মাস ধরে তার শারীরিক অবস্থার অবনতি ও এজন্য বিদেশে উন্নত চিকিৎসা নিশ্চিত করতে দলটি কার্যকর কোনো উদ্যোগ নেয়নি। বরং খালেদা জিয়ার চিকিৎসার বিষয়টিকে প্রতিবারই ‘পারিবারিকভাবে’ দেখা হচ্ছে, বলে জানিয়েছেন নেতারা।

বিএনপির উচ্চ পর্যায়ের কয়েকজন দায়িত্বশীল নেতার সঙ্গে আলাপকালে তারা জানান, খালেদা জিয়ার মুক্তির বিষয় রাজনৈতিকভাবে মোকাবিলা করতে দলগতভাবে বিএনপি ব্যর্থ হয়েছে।

রাজপথে আন্দোলনের মধ্য দিয়েও যেমন কোনো চাপ তৈরি করতে পারেনি বিএনপি, তেমনই সাংগঠনিকভাবেও খালেদা জিয়ার রাজনৈতিক প্রভাব-প্রতিপত্তিকেও কাজে লাগাতে ব্যর্থ হয়েছে।

নেতারা জানান, গত এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহে খালেদা জিয়ার করোনা আক্রান্তের খবরে বিএনপি ও অঙ্গ-সংগঠনের নেতাকর্মীরা যেভাবে দোয়া-দরুদে মনোযোগ দিয়েছেন, তার আগে দলীয় প্রধানের মুক্তির প্রশ্নে ততটাই নিষ্ক্রিয়তা দেখান তারা। 

২০১৯ সাল থেকে ২০২০ সালের ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ঝটিকা বিক্ষোভ কর্মসূচি দেখা গেলেও করোনাভাইরাসের সংক্রমণের পর দলটির সব কর্মসূচিই ছিল ভার্চুয়াল নির্ভর।

দায়িত্বশীল সূত্রগুলো বলছে, দলের আইনজীবীদের মতো খালেদা জিয়ার মুক্তি ও স্বাস্থ্য প্রশ্নে স্থায়ী কমিটির সদস্যরা যেমন মুখ্য কোনো ভূমিকা রাখতে পারেননি, একইভাবে দলের গুরুত্বপূর্ণ- ফরেন রিলেশন্স কমিটিও দলীয় প্রধানের প্রশ্নে দেশের বাইরের কোনো বন্ধুরাষ্ট্র বা আন্তর্জাতিক ব্যক্তি-সংগঠনকে যুক্ত করতে পারেনি।

স্থায়ী কমিটি ও ফরেন উইংয়ের এক সদস্য বলেন, গোটা পৃথিবীর আন্তর্জাতিক রাজনীতি আগের জায়গায় নেই। পরাশক্তির দেশগুলো এখন যে প্রক্রিয়ায় এগোচ্ছে, তাতে এ ধরনের ঘটনাকে তারা কীভাবে দেখবে, তা বিবেচনায় রাখতে হবে।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির আরেক সদস্য বলেন, নেতাদের কেউ কেউ তো বরাবরই শীর্ষ নেতৃত্বকে বুঝান যে- বিভিন্ন দেশে তাদের যোগাযোগ আছে, বন্ধু আছে। কিন্তু এই সময়ে তো তার কোনো বহিঃপ্রকাশ ঘটেনি।

জানতে চাইলে ফরেন রিলেশন্স কমিটির টিম লিডার ও স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেন, দলীয়ভাবে প্রত্যেক দিন ম্যাডামের (খালেদা জিয়া) চিকিৎসার বিষয়টি বলা হচ্ছে। সেক্রেটারি জেনারেল, দলের স্থায়ী কমিটি ও অন্য নেতারাও বিষয়টিকে প্রতিদিন তুলে ধরছেন। এখন দেখছি আন্দোলন ছাড়া উপায় নেই। চিকিৎসার জন্যও আন্দোলন করতে হবে। 

চাপ সৃষ্টিতে বিএনপির ব্যর্থতা প্রসঙ্গে দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার বলেন, বিদেশিদের কাছে অনুযোগ ও অভিযোগ দিয়েও লাভ হবে না। এজন্য প্রয়োজন রাজনৈতিক চাপ, যেটা বিএনপিকে সৃষ্টি করতে হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এএএম/এমএস/এইচএন