কোন পথে হাঁটছি আমরা?

কোন পথে হাঁটছি আমরা?

ইমতিয়াজ মেহেদী হাসান ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৫:২৮ ১৬ জুন ২০২২  

চোখ বুঝলেই দুনিয়া আন্ধার। তবু যেন হুঁশ নেই আল্লাহর বান্দার। রেষারেষি-হানাহানি চলছেই। চলছে একে-অপরের ঘাড়ে পা দিয়ে প্রতিযোগিতায় জেতার প্রতিযোগিতা। সত্যিই আমরা খুব স্বার্থপর হয়ে গেছি। এককেন্দ্রিক হয়ে গেছি। নিজেরটা ছাড়া কিছুই বুঝি না। একদমই না। অপরকে ঠকিয়ে, বাঁশ দিয়ে নিজে সফল হওয়ার বোধটা যেন নিজেদের ভেতরে ক্রমেই শিশু থেকে কিশোরে পরিণত হচ্ছে।

আচ্ছা কোন পথে হাঁটছি আমরা? একবারও ভেবেছেন? এখন পাশের ফ্ল্যাটের কেউ মারা গেলে আমরা অনাত্মীয় বলে এগিয়ে যাই না। জরুরি প্রয়োজনে কারো রক্তের প্রয়োজন হলে ‘অপরিণত’ অজুহাত দেখিয়ে এড়িয়ে যাই। ভিক্ষুকরা হাত পাতলে পায়ে ঠেলে না দেখার ভান করি। বৃদ্ধ বাবা-মাকে যথোপযুক্ত দেখাশোনা না করে প্রেমিকা-বৌ নিয়ে উৎসবে মাতি। উল্লাস করি। বিপদে কারো অর্থের প্রয়োজন হলে পকেটে টাকা থাকা সত্ত্বেও দিব্যি ভালো ছেলের মতো মাথা চুলকিয়ে বলি, আমার কাছে নেই। একদমই নেই। আগে বললেই পারতে। একটু চেষ্টা করে দেখতাম।

সত্যি কথা বলতে, আমরাই নেই। হারিয়ে গেছি। গভীর থেকে গভীরে। শেকড় থেকে শেকড়াভ্যন্তরে। সেই সঙ্গে হারিয়ে গেছে আমাদের মানবিকতা। হারিয়ে গেছে ভূপেন হাজারিকার ‘মানুষ মানুষের জন্য’ গানের স্বরলিপি।

মরিচা ধরে গেছে বিবেকে। মিথ্যা, লালসা আর অহমিকার বোবা যৌনতায় আমাদের জীবন হারিয়েছে সরলতার খেই। সবাই যেন ‘রঙিন’ কফিনে মৃতের জীবন নিয়ে রোদচশমা পরে বেঁচে আছে। সুখে থাকার মেকি অভিনয়ে ‘সরলতার’ পৌঢ় ইনহেলার টানছে।

কে জানে? হয়তো এভাবেই কেটে যাবে। কেউ বদলানোর কথা বলবে না। লিখবে না। শুধু জেগে জেগে ঘুমাবে। সহ্য করার ‘কার্যকরী’ অ্যান্টিবায়োটিক নিয়ে ধুম্রশালাকায় হারাবে। ফুলস্টপ বাটনে প্রেস করে আমাতে বুঁদ হবে। এরপর ভীষণ ডিপ্রেশনে দাঁড়ি-কমার জীবনকে বিদায় জানিয়ে একমুখ শুকনো হাসি হাসবে। অ্যালকোহলের সমাপনী পেয়ালায় মুখ রেখে ইতিকাব্য লিখবে। অতঃপর দেহঘড়ির ইঞ্জিন বিকল করে পৃথিবীকে ‘গুডবাই’ জানাবে।

আমাদের আসলে হুঁশ হবে না। লজ্জা হবে না। যদি হতো, তবে ‘মানবিকতা’ আজ ছিন্ন বস্ত্র নিয়ে নির্বাসনে যেতো না। বরং রোদগলা দুপুরে খালি পায়ে ঠাঁই দাঁড়িয়ে থাকতো ওই কৃষ্ণচূড়াতলায়। আর সুরে সুর মিলিয়ে হেঁড়ে গলায় গাইতো....

‘মানুষ মানুষের জন্য, জীবন জীবনের জন্য’

কিন্তু আফসোস, আমরা নিজেরাই নিজেদের নষ্ট করেছি। ধ্বংস করেছি। লোভের বশে, মোহের বশে, ক্ষমতার কামুকে দাপটে অন্ধ হয়েছি। ভুলে গেছি আমরাও মানুষ। মানুষের খোলসে ‘অমানুষ’ নই।

লেখক: গণমাধ্যমকর্মী, গীতিকার ও নির্মাতা

ডেইলি বাংলাদেশ/এমআর