ক্ষমা চাইলেন মুরাদ

ক্ষমা চাইলেন মুরাদ

নিজস্ব প্রতিবেদক     ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৩:৩০ ৭ ডিসেম্বর ২০২১   আপডেট: ১৪:২১ ৭ ডিসেম্বর ২০২১

ডা. মুরাদ হাসান- ফাইল ফটো

ডা. মুরাদ হাসান- ফাইল ফটো

ব্যক্তিগত কারণ দেখিয়ে মন্ত্রিসভা থেকে আজ পদত্যাগ করেছেন তুমুল সমালোচিত তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান। এরপর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অসৌজন্যমূলক বক্তব্য ও নারী বিদ্বেষী অশ্লীলতার কারণে ক্ষমা চাইলেন তিনি। 

মঙ্গলবার দুপুরে নিজের ">ভেরিফাইড ফেসবুক পোস্টে এ কথা জানান।

তিনি লিখেছেন, আমি যদি কোন ভুল করে থাকি অথবা আমার কথায় মা-বোনদের মনে কষ্ট দিয়ে থাকি তাহলে আমাকে ক্ষমা করে দিবেন। 

পোস্টে তিনি আরো লিখেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী মমতাময়ী মা দেশরত্ন বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার সকল সিদ্ধান্ত মেনে নিবো আজীবন। 

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অসৌজন্যমূলক বক্তব্য দেওয়ায় তাকে মঙ্গলবারের মধ্যে মন্ত্রিসভা থেকে পদত্যাগ করতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশের কথা জানান আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। 

সম্প্রতি তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী মুরাদ হাসান বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া, ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপারসন তারেক রহমান এবং তার মেয়ে জাইমা রহমানকে নিয়ে একটি সাক্ষাৎকারে অসৌজন্যমূলক কথা বলেন। এছাড়া এর কিছু পরেই প্রতিমন্ত্রী মুরাদের একটি কথোপকথন ফাঁস হয়, যেখানে তিনি অশ্লীল ভাষায় চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহিকে তার সঙ্গে দেখা করার জন্য বলেন। ফোনে চিত্রনায়ক ইমনকে তিনি বলেন, ঘাড় ধরে যেন মাহিকে তার কাছে নিয়ে যান। বিষয়টি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে বিভিন্ন মহলে ডা. মুরাদের শাস্তির দাবি ওঠে।

ডেইলি বাংলাদেশ/জাআ/এমএস