দক্ষ মানবসম্পদ দিয়ে আমূল পরিবর্তন আনা সম্ভব: পলক

দক্ষ মানবসম্পদ দিয়ে আমূল পরিবর্তন আনা সম্ভব: পলক

নিজস্ব প্রতিবেদক  ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৬:৩৮ ৭ এপ্রিল ২০২১   আপডেট: ১৮:৫২ ৭ এপ্রিল ২০২১

গ্রামীণফোনের ডিজিটাল স্কিলস একাডেমি ‘জিপি এক্সপ্লোরার ২.০’-এর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনকালে অনলাইন প্ল্যাটফর্মে যুক্ত হয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক

গ্রামীণফোনের ডিজিটাল স্কিলস একাডেমি ‘জিপি এক্সপ্লোরার ২.০’-এর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনকালে অনলাইন প্ল্যাটফর্মে যুক্ত হয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, মানবসম্পদ অত্যন্ত মূল্যবান। দক্ষ মানবসম্পদ গড়ে তুলতে পারলেই ভবিষ্যৎ অর্থনীতিসহ সবক্ষেত্রে আমূল পরিবর্তন আনা সম্ভব হবে।

বুধবার গ্রামীণফোনের ডিজিটাল স্কিলস একাডেমি ‘জিপি এক্সপ্লোরার ২.০’-এর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনকালে অনলাইন প্ল্যাটফর্মে যুক্ত হয়ে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

তরুণদের উদ্দেশ্যে প্রতিমন্ত্রী বলেন, প্রযুক্তির কল্যাণে পৃথিবী দ্রুত পরিবর্তন হচ্ছে। পরিবর্তনশীল বিশ্বের সঙ্গে শুধু নিজেদের খাপ খাইয়ে নিলেই হবে না, প্রযুক্তি জ্ঞান আহরণের মাধ্যমে নেতৃত্বের জায়গা তৈরি করে নিতে নিজেদের প্রস্তুতও করতে হবে।

তরুণদের প্রতিনিয়ত জ্ঞান অর্জন করতে হবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের এ সময় একটি নির্দিষ্ট বিষয়ে দক্ষতা অর্জন করে জীবনের বাকি সময় কর্মজীবন পরিচালনা করা সম্ভব না।

তিনি আরো বলেন, ‘জিপি এক্সপ্লোরার ২.০’ আধুনিক প্রযুক্তি বিষয়ে বিভিন্ন স্কিলসে তরুণদের প্রশিক্ষণ প্রদানের মাধ্যমে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে। দেশের তরুণদের কোডিং, প্রোগ্রামিংসহ প্রযুক্তি বিষয়ে বেসিক নলেজ প্রদানে আইসিটি বিভাগের উদ্যোগে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ে আট হাজার শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাব স্থাপন করা হয়েছে।

আইসিটি প্রতিমন্ত্রী বলেন, দক্ষতামুখী মানবসম্পদ তৈরির লক্ষ্যে ৬৪টি জেলায় শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং অ্যান্ড ইনকিউবেশন সেন্টার ও ৩০০টি স্কুল অব ফিউচার এবং নতুন প্রজন্মকে প্রযুক্তি বিশ্বের নেতৃত্ব দানের উপযোগী করে তুলতে শেখ হাসিনা ইনস্টিটিউট অব ফ্রন্টিয়ার টেকনোলজি প্রতিষ্ঠা করা হচ্ছে।

তিনি আরো বলেন ২০২১ সালের মধ্যে ৪০ লাখের অধিক শিক্ষার্থীকে মুক্তপাঠ ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে যুক্ত করা হবে। বর্তমানে ১০ লক্ষাধিক শিক্ষার্থী এ প্ল্যাটফর্মের সঙ্গে যুক্ত রয়েছে।

জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, করোনা মহামারির কারণে গ্লোবাল ভিলেজের এক দেশ থেকে অন্য দেশে যাতায়াত প্রায় বন্ধ এবং প্রায় ৮০ শতাংশ যোগাযোগ কমে গেছে। এমন বৈরী পরিস্থিতিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গতিশীল নেতৃত্ব ও সময়োপযোগী পদক্ষেপ গ্রহণের ফলে বাংলাদেশের জিডিপি ৫.২ শতাংশ ধরে রাখা সম্ভব হয়েছে। বাংলাদেশ স্বল্পোন্নত থেকে উন্নয়নশীল দেশের মর্যাদা লাভ করতে সক্ষম হয়েছে। এজন্য সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়তে তারুণ্যের শক্তিকে সঠিকভাবে কাজে লাগাতে হবে।

অনলাইন প্ল্যাটফর্মে সংযুক্ত হয়ে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, গ্রামীণফোনের সিইও ইয়াসির আজমান, হিউম্যান রিসোর্স বিভাগের প্রধান আফতাব উদ্দিন মাহমুদ, হিউম্যান রিসোর্স প্রফেশনালস সোলায়মান আলম ও ফারহানা ইসলাম।

উল্লেখ্য, ‘জিপি এক্সপ্লোরার ২.০’-এ দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অংশগ্রহণ করছেন ৩৫৭ শিক্ষার্থী।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকেএ/এইচএন