মামলা-মোকদ্দমায় সময়-অর্থ না দিয়ে দেশের উন্নয়নে ব্যয় করুন: এলজিআরডি মন্ত্রী

মামলা-মোকদ্দমায় সময়-অর্থ না দিয়ে দেশের উন্নয়নে ব্যয় করুন: এলজিআরডি মন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৬:৪৭ ৪ মার্চ ২০২১   আপডেট: ১৯:০৩ ৪ মার্চ ২০২১

রাজধানীর একটি হোটেলে `Activating Village Courts in Bangladesh (Phase 2) Project Reflection` শীর্ষক কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় (এলজিআরডি) মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম - পিআইডি

রাজধানীর একটি হোটেলে `Activating Village Courts in Bangladesh (Phase 2) Project Reflection` শীর্ষক কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় (এলজিআরডি) মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম - পিআইডি

আদালতে মামলা-মোকদ্দমা করে একে অপরকে হয়রানি এবং অর্থ, সময় ও শ্রম ব্যয় না করে তা দেশের উন্নয়নে ব্যয় করতে দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় (এলজিআরডি) মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর একটি হোটেলে 'Activating Village Courts in Bangladesh (Phase 2) Project Reflection' শীর্ষক কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ আহ্বান জানান।

এলজিআরডি মন্ত্রী বলেন, গ্রাম আদালতের কার্যক্রম জোরদারকরণ, গতিশীলতা আনয়ন ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করার মাধ্যমে বিভিন্ন মামলার জট কমিয়ে আনতে কাজ করছে সরকার। মামলা নিষ্পত্তি করতে যেখানে যেখানে সংস্কার করা দরকার তা করা হবে। ইউনিয়ন পরিষদ, উপজেলা পরিষদ এবং উপজেলা প্রশাসনসহ সংশ্লিষ্ট সবাই সমন্বিতভাবে কাজ করলে যেকোনো সমস্যা সমাধান করা সম্ভব।

তিনি জানান, মাত্র ৮৪ ডলারের মাথাপিছু আয়ের দেশ এখন দুই হাজার ডলার ছাড়িয়েছে। ২০৪১ সালের মধ্যে দেশকে উন্নত-সমৃদ্ধ করতে হলে প্রয়োজন সাড়ে ১২ হাজার ডলার। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ এর আগেই নির্দিষ্ট লক্ষ্যে পৌঁছে যাবে বলেও উল্লেখ করেন মন্ত্রী।

তাজুল ইসলাম বলেন, সব শ্রেণির মানুষের সমন্বিত উদ্যোগে সমাজে বিদ্যমান সকল অনিয়ম-অবিচার, অসঙ্গতি দূর করে সমাজকে কলুষতামুক্ত করতে হবে। দুর্নীতি বা অসদুপায় অবলম্বন করা ছাড়াও ভালোভাবে বাঁচা এবং জীবনে উন্নতি করা সম্ভব। 

তিনি বলেন, সবার সদিচ্ছা বাংলাদেশের চেহারা পরিবর্তন করে দিতে পারে। দেশের মানুষ একত্র হয়ে উন্নয়নের জন্য কাজ করছে বলেই দেশ এগিয়ে যাচ্ছে।

মন্ত্রী আরো বলেন, জনপ্রতিনিধি, সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠান বা কর্মচারীসহ সব স্তরের মানুষের জবাবদিহিতা না থাকলে ভালো ফলাফল আসার সম্ভাবনা থাকে না। এজন্য সবার আগে সব ক্ষেত্রে জবাবদিহিতা প্রতিষ্ঠা করতে হবে।

স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন আহমদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে ইউএনডিপি বাংলাদেশের আবাসিক প্রতিনিধি সুদীপ্ত মুখার্জি, ইউরোপীয় ইউনিয়নের রাষ্ট্রদূত রেন্সজে তেরিংক এবং স্থানীয় সরকার বিভাগের অতিরিক্ত সচিব ও প্রকল্প পরিচালক মরণ কুমার চক্রবর্তী স্বাগত বক্তব্য রাখেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/টিআরএইচ/এইচএন