সর্বোচ্চ ভ্যাট প্রদানকারীর সম্মাননা পেল ১৪০ প্রতিষ্ঠান

সর্বোচ্চ ভ্যাট প্রদানকারীর সম্মাননা পেল ১৪০ প্রতিষ্ঠান

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১১:১৯ ৪ ডিসেম্বর ২০২০   আপডেট: ১৬:২৬ ৪ ডিসেম্বর ২০২০

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

চলতি বছর সর্বোচ্চ ভ্যাট (মূসক) প্রদানকারী হিসেবে ১৪০ প্রতিষ্ঠান পেয়েছে সম্মাননা। এর মধ্যে জাতীয় পর্যায়ের ৯টি ও জেলা পর্যায়ের ১৩১টি প্রতিষ্ঠান রয়েছে।

এনবিআর সূত্রে জানা গেছে, সরকার ঘোষিত ‘সর্বোচ্চ মূল্য সংযোজন কর পরিশোধকারী প্রতিষ্ঠানকে পুরস্কার প্রদান নীতিমালা, ২০০৫ (সংশোধিত)’-এর অধীনে এ পুরস্কার দেয়া হচ্ছে।

গত মঙ্গলবার জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) দ্বিতীয় সচিব (মূসক-প্রশিক্ষণ ও পুরস্কার) ইসরাত জাহান রুমার স্বাক্ষর করা এ সংক্রান্ত পৃথক প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। বুধবার জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) সিনিয়র তথ্য অফিসার সৈয়দ এ মুমেন এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এ বছর উৎপাদন, ব্যবসা ও সেবা- এ তিন খাতে জাতীয় পর্যায়ে  নয়টি প্রতিষ্ঠান সম্মাননা পেয়েছে। উৎপাদন খাতে পপুলার ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেড, বার্জার পেইন্টস বাংলাদেশ লিমিটেড ও ফেয়ার ইলেকট্রনিক্স লিমিটেড এ পুরস্কার পেয়েছে।

ব্যবসা খাতে এ পুরস্কার পেয়েছেন হ্যামকো কর্পোরেশন লিমিটেড, সিমেন্স বাংলাদেশ লিমিটেড ও ইউনিমার্ট লিমিটেড। আর সেবা খাতে সামিট কমিউনিকেশনস লিমিটেড, কাতার এয়ারওয়েজ গ্রুপ (কিউসিএসসি) ও চিটাগাং ওয়্যারহাউজেস লিমিটেড পুরস্কার পেয়েছে।

আর চলতি বছর জেলা পর্যায়ে মোট ১৩১টি প্রতিষ্ঠানকে সম্মাননা দেয়া হয়েছে। সর্বোচ্চ ভ্যাট প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ঢাকা জেলায় মেসার্স ল্যাবএইড ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেড, সিমেন্স হেলথ কেয়ার লিমিটেড ও থাই এয়ারওয়েজ ইন্টারন্যাশনাল পাবলিক কোম্পানি লিমিটেড।

মুন্সীগঞ্জ জেলায় এস্কোয়্যার হেভি ইন্ডাস্ট্রিজ লি. ও মেসার্স বনশ্রী ফার্নিচার। শেরপুর জেলায় এগ্রো অর্গানিক প্রা. লিমিটেড। ময়মনসিংহ জেলায় মেসার্স গোপাল পালের প্রসিদ্ধ মণ্ডার দোকান। নারায়ণগঞ্জের বসুন্ধরা ইন্ডাস্ট্রিয়াল কমপ্লেক্স লি.।

রাজশাহীতে মুসলিম কসমেটিক্স অ্যান্ড হারবাল কেয়ার, সপুরা সিল্ক মিলস লি. ও হোটেল ডালাস ইন্টারন্যাশনাল। বান্দরবান জেলায় ভেনাস রিসোর্ট অ্যান্ড কফি হাউস। খাগড়াছড়িতে মেসার্স ফোর স্টার এন্টারপ্রাইজ। 

গাজীপুর জেলায় ড্রাগ ইন্টারন্যাশনাল লিমিটেড, নিলয় মটরস লিমিটেড ও হাতিল কমপ্লেক্স লিমিটেড। কিশোরগঞ্জ জেলায় স্বপন কেমিক্যাল ওয়ার্কস, মেসার্স মোহন মটরস ও মদন গোপাইল সুইট কেবিন।

নরসিংদী জেলায় আরএফএল ইলেকট্রনিক্স লিমিটেড, মেসার্স কালাচাঁন দাস ও নেটস্কোপ। মানিকগঞ্জ জেলায় আকিজ স্টিল মিলস লিমিটেড ও পদ্মা রিভারভিউ। টাঙ্গাইল জেলায় মাসাফি ব্রেড অ্যান্ড বিস্কুট ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড, মেসার্স যমুনা ট্রেডার্স ও গোপাল মিষ্টান্ন ভাণ্ডার।

জামালপুর জেলায় দি হিমালয়া ড্রাগ কোম্পানি লিমিটেড, হাবিবুর রহমান অ্যান্ড সন্স ও হোটেল রাইয়ান ইন্ডাস্ট্রিজ। চট্টগ্রাম জেলায় এক্সক্লুসিভ ক্যান লিমিটেড ও চৌধুরী টি ওয়্যারহাউস।

সিরাজগঞ্জে এমএ মাতিন কটন মিলস লিমিটেড ও সুব্রত সুইটস।বগুড়ায় এ বি সিরামিকস ইন্ডাস্ট্রিজ, টাচ অ্যান্ড টেক ও এশিয়া সুইটমিট অ্যান্ড কোল্ড ড্রিংকস। পাবনায় স্কয়ার টয়লেট্রিজ লিমিটেড, মেসার্স ফকির এন্টারপ্রাইজ ও বনলতা সুইটস অ্যান্ড বেকারি।

নাটোরে পিএসএস মেটাল, বিসমিল্লাহ মটরস ও মৌচাক মিষ্টি ভাণ্ডার। নওগাঁয় মেঘলা এন্টারপ্রাইজ। জয়পুরহাটের রাসেল ট্রেডিং। চাঁপাইনবাবগঞ্জের মেসার্স আয়েশা এন্টারপ্রাইজ ও আলাউদ্দিন হোটেল অ্যান্ড রেস্টুরেন্ট।

নোয়াখালীর হোন্ডা গ্যালারি, মেসার্স বিশ্বনাথ কর্মকার অ্যান্ড আদার্স, চাঁদপুরের মেসার্স চাঁদপুর লাইমস ও দি ক্যাফে ঝিল-২ হোটেল অ্যান্ড রেস্টুরেন্ট। খুলনার আবদুল্লাহ ব্যাটারি কোং প্রা. লিমিটেড ও টাইগার গার্ডেন ইন্টারন্যাশনাল।

সিলেটের বঙ্গ বেকার্স লিমিটেড ও গ্রিন লাইন পরিবহন। হবিগঞ্জের বঙ্গ বিল্ডিং মেটারিয়ালস লিমিটেড, লুবনান ট্রেড কনসোর্টিয়াম লি. হোল্ডিং ও আলম ফুড গার্ডেন। সুনামগঞ্জের মেসার্স চৌধুরী লাইম ইন্ডাস্ট্রিজ, মেসার্স সুপ্রভা ইন্টারন্যাশনাল ও ইস্টার্ন মটরস। মৌলভীবাজারের গ্রিন লিফ ইনোভেশন লিমিটেড ও স্বাদ ব্রেড অ্যান্ড বিস্কুট।

ব্রাক্ষণবাড়িয়ার চৌধুরী রিফাইনারি লিমিটেড ও মেসার্স হোটেল উজানভাটি অ্যান্ড রিসোর্ট। কুমিল্লার শফিউল আলম স্টিল রি-রোলিং মিলস, লুবনান ট্রেড কনসোর্টিয়াম লিমিটেড ও বনফুল অ্যান্ড কোং। লক্ষ্মীপুরের সিটি লুব ওয়েল ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড, হরিণারায়ন মজুমদার অ্যান্ড সন্স ও হোটেল নুরজাহান। ফেনীর লিংক আপ স্টিল মিলস লিমিটেড, মদিনা পলিমার ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড ও হোটেল মিডনাইট।

বরিশালের অলিম্পিক সিমেন্ট লিমিটেড, নিউ পার্ক বাংলা ও হক মিষ্টান্ন ভাণ্ডার। শরীয়তপুরের মেসার্স মনিকা কেমিক্যাল, মেসার্স এজি ট্রেডার্স ও চিত্ত ঘোষ মিষ্টান্ন ভাণ্ডার। সাতক্ষীরার চায়না বাংলা ফুডস ও মেসার্স শাহিন এন্টারপ্রাইজ। বাগেরহাটের এস কে এস এলপিজি, মেসার্স তারেক এন্টারপ্রাইজ ও হোটেল অভি। 

যশোরের মেসার্স পানশাহী জর্দা ফ্যাক্টরি, থ্রি আর অটো ও রুরাল রিকনস্ট্রাকশন ফাউন্ডেশন। বরগুনার মেসার্স উজ্জ্বল কেমিক্যাল ও মেসার্স রাব্বানী স্টোর। পিরোজপুরের মেসার্স তৌফিক ব্রাদার্স ডকইয়ার্ড। পটুয়াখালীর মেসার্স হাজি অ্যান্ড সন্স, মল্লিকা রেস্তোরাঁ। ঝালকাঠির সাবিহা কেমিক্যাল ওয়ার্কস ও সারেং ফার্নিচার। 

কুষ্টিয়ার এম আর এস ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড ও গ্রিন এন্টারপ্রাইজ। ঝিনাইদহের বি অ্যান্ড টি মিটার লিমিটেড ও ফসিয়ার মটরসাইকেল সেন্টার। চুয়াডাঙ্গার মেসার্স বঙ্গ পিভিসি পাইপ ইন্ডাস্ট্রিজ, মেসার্স তাজ মটরস। গোপালগঞ্জের মেসার্স কাজী সৈয়দ আলী ও শরীফ ফার্নিচার। 

ফরিদপুরের রাজ্জাক ফুড অ্যান্ড বেভারেজ লিমিটেড, মেসার্স তাজ ইন্টারন্যাশনাল ও মেসার্স হোটেল র‍্যাফেলস ইন। নড়াইলের নিরিবিলি পিকনিক স্পষ্ট। রাজবাড়ীর মেসার্স বদরুন্নেসা কেমিক্যাল কোং, আমিন বাজাজ ও হোটেল সালমা অ্যান্ড রেস্টুরেন্ট। মেহেরপুর আল কাইফ মটরস ও বাসুদেব গ্রান্ড সন্স। মাগুরার মেসার্স ভাই ভাই প্লাস্টিক, ডিউরেবল প্লাস্টিক লিমিটেড ও হোটেল সোনার বাংলা। 

গাইবান্ধার মেসার্স নিবারন চন্দ্র সাহা ও এস কে এস ইন। ঠাকুরগাঁওয়ের লায়ন সোপ ফ্যাক্টরি ও করতোয়া কুরিয়ার পার্সেল অ্যান্ড সার্ভিস। কুড়িগ্রামের মেসার্স বগুড়া দধি অ্যান্ড মিষ্টান্ন ভাণ্ডার।

লালমনিরহাটের মেসার্স গোল্ডেন বিড়ি ফ্যাক্টরি। রংপুরের মহুবর রহমান পার্টিকেল মিলস লিমিটেড, লুবনান ট্রেড কনসোর্টিয়াম লি. ও বৈশাখী মিষ্টি মেলা। পঞ্চগড়ের মেসার্স কমলেশ ট্রেডার্স ও সেন্ট্রাল গেস্ট হাউস লিমিটেড। নীলফামারীর ইকু পেপার মিলস লিমিটেড ও শাকিল মটরস। দিনাজপুরের আরবিপি ওভেন ইন্ডাস্ট্রিজ ও এস কে মটরস।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডআর/টিআরএইচ