ভৈরবে পাদুকা শিল্পের বিশাল সম্ভাবনা রয়েছে: শিল্পমন্ত্রী

ভৈরবে পাদুকা শিল্পের বিশাল সম্ভাবনা রয়েছে: শিল্পমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৫:১৭ ২২ অক্টোবর ২০২০   আপডেট: ১৫:৩০ ২২ অক্টোবর ২০২০

সভায় বক্তব্য রাখেন শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন। ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

সভায় বক্তব্য রাখেন শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন। ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ভৈরবে পাদুকা শিল্পের বিশাল সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানিয়েছেন শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন। তিনি বলেন, রাজধানী থেকে পাদুকা শিল্পের সঙ্গে জড়িত অনেক কারিগর ও শ্রমিক এরইমধ্যে ভৈরবে স্থানান্তরিত হয়ে জুতা কারখানা স্থাপন করেছেন। 

রোববার ২০২০-২০২১ অর্থবছরে শিল্প মন্ত্রণালয়ের বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচিতে অন্তর্ভুক্ত প্রকল্পসমূহের বাস্তবায়ন অগ্রগতি পর্যালোচনা সভায় এসব কথা বলেন তিনি। 

এ সময় ভৈরবে বিসিক শিল্পনগরী প্রকল্পের নির্মাণ কাজ অগ্রাধিকারভিত্তিতে সম্পন্ন করার নির্দেশনা দেন শিল্পমন্ত্রী। পাশাপাশি পাদুকা শিল্প উদ্যোক্তাদের চাহিদা মাফিক প্লট বরাদ্দ দিতে বিসিককে নির্দেশনা দেন তিনি।

শিল্পমন্ত্রী বলেন, প্রকল্প বাস্তবায়নের চলমান গতি ধরে রাখতে সংস্থা পর্যায়ে নিবিড় মনিটরিং আরো জোরদার করতে হবে। সরকারের ব্যয় সাশ্রয়ে বিভিন্ন কারখানায় যন্ত্রাংশ বার বার মেরামতের পরিবর্তে নতুন মেশিনারি প্রতিস্থাপন করতে হবে। পাশাপাশি কারখানা পর্যায়ে যেকোনো ধরনের অনিয়ম ও দুর্নীতি প্রতিরোধে সব সময় সজাগ থাকতে হবে। 

তিনি বলেন, মুক্তবাজার অর্থনীতিতে রাষ্ট্রায়ত্ত কারখানাগুলো টিকে থাকার সক্ষমতা বাড়াতে আধুনিকায়ন ও পণ্য বৈচিত্র্যকরণের উদ্যোগ বাস্তবায়ন করতে হবে। 

সভায় বিশেষ অতিথির বক্তৃতায় শিল্প প্রতিমন্ত্রী কামাল আহমেদ মজুমদার বলেন, বিদেশ হতে চিনি আমদানি করে সেগুলোকে রিফাইনিংয়ের মাধ্যমে বিএসএফআইসি’র চিনিকলগুলোতে সারাবছর উৎপাদন কার্যক্রম অব্যাহত রাখা হবে।

এ সময় চিনিকলগুলোর খালি জমিকে উৎপাদনশীল কাজে লাগানোর একটি পরিকল্পনা উপস্থাপনের জন্য বিএসএফআইসি’র চেয়ারম্যানকে নির্দেশনা দেন শিল্প প্রতিমন্ত্রী। 

করোনায় স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্ব অনুসরণ করে কঠোর পরিশ্রমের মাধ্যমে দায়িত্ব পালনের জন্য সবাইকে আহ্বান জানিয়ে কামাল আহমেদ মজুমদার বলেন, শিল্প মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন কারখানাগুলোতে যোগ্য কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের পদোন্নতি দেয়া হবে।  

সভায় দেশের সব বিভাগীয় ও গুরুত্বপূর্ণ জেলা শহরগুলোতে বাংলাদেশ শিল্প কারিগরি সহায়তা কেন্দ্র (বিটাক)’র আঞ্চলিক কেন্দ্র স্থাপন করার বিষয়ে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। 

শিল্প মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত সভায় শিল্প সচিব কে এম আলী আজম সভাপতিত্ব করেন। এতে শিল্প মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, সংশ্লিষ্ট প্রকল্প পরিচালক ও নির্মাতা প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডআর