ইনডেমনিটি অধ্যাদেশ: সভ্যতা ও মানবতার কালো অধ্যায়

ইনডেমনিটি অধ্যাদেশ: সভ্যতা ও মানবতার কালো অধ্যায়

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৩:৪৫ ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০   আপডেট: ১৪:০৯ ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০

দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা

দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা

সভ্যতা ও মানবতার ইতিহাসের এক কালো অধ্যায় ইনডেমনিটি অধ্যাদেশ। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট সপরিবারে নির্মমভাবে হত্যা করা হয় স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে। আর, এ হত্যাকারীদের বাঁচাতে সে বছর ২৬ সেপ্টেম্বর জারি করা হয়েছিল কুখ্যাত এই ইনডেমনিটি অধ্যাদেশ।

১৯৭৫ সালের ২৬ সেপ্টেম্বর অবৈধভাবে রাষ্ট্রপতির পদ দখলকারী খুনি মোশতাক আহমেদ একটি অধ্যাদেশ আকারে ইনডেমনিটি জারি করে। এটি ১৯৭৫ সালের অধ্যাদেশ নং ৫০ নামে অভিহিত ছিল। 

অধ্যাদেশে বলা হয়, ৭৫ এর ১৫ আগস্টের হত্যাকাণ্ডে জড়িত অথবা পরিকল্পনার সঙ্গে যুক্ত কারো বিরুদ্ধে কোনো আদালতে মামলা করা যাবে না। এমন কি সুপ্রিম কোর্ট কিংবা কোর্ট মার্শালেও তাদের বিচার করা যাবে না। অফিসে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়ার পথও রুদ্ধ করা হয় ওই মানবতা বিরোধী অধ্যাদেশে।

এরপর ১৯৭৯ সালের ৯ জুলাই জিয়াউর রহমানের আমলে সংসদে এই কালো আইনটিকে অনুমোদন দেয়া হয়। শুধু তাই নয়, ১৯৭৯ সালের ৯ জুলাই জিয়াউর রহমানের আমলে বাংলাদেশ সংবিধানের ৫ম সংশোধনীর পর সংশোধিত এ আইনটি বাংলাদেশ সংবিধানে অন্তর্ভুক্ত করা হয়।

দীর্ঘ ২১ বছর পর ১৯৯৬ সালে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এলে কালো এই আইনটি বাতিল করে জাতীয় সংসদ। খুলে যায় বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচারের পথ। কলঙ্কমুক্ত হয় জাতি।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএইচ