ন্যাশনাল সার্ভিস কর্মসূচিতে প্রশিক্ষণ নিয়েছেন ২২ লাখের বেশি মানুষ

ন্যাশনাল সার্ভিস কর্মসূচিতে প্রশিক্ষণ নিয়েছেন ২২ লাখের বেশি মানুষ

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৯:৪২ ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০   আপডেট: ১৩:৪৬ ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

ন্যাশনাল সার্ভিস কর্মসূচির অধীনে এ পর্যন্ত ২২ লাখের বেশি মানুষ প্রশিক্ষণ নিয়েছেন। এ কর্মসূচি বর্তমান সরকারের একটি অগ্রাধিকারমূলক কর্মসূচি।

বুধবার সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির অষ্টম বৈঠকে এ তথ্য জানানো হয়।

মন্ত্রণালয় থেকে উত্থাপিত বৈঠকের কার্যপত্রে উল্লেখ করা হয়, ন্যাশনাল সার্ভিস কর্মসূচির অধীনে এ পর্যন্ত ২২ লাখ ৯ হাজার ৯১০ জনকে প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে। এর মধ্যে অস্থায়ী কর্মসংযুক্তি প্রাপ্ত ২২ লাখ ৭ হাজার ৫৭৫ জন। কর্ম সংযুক্তিতে ২০০৯-১০ অর্থবছর হতে ২০১৯-২০ অর্থবছর পর্যন্ত তিন হাজার ১৮০ কোটি ৮২ লাখ টাকা ব্যয় হয়েছে। চলতি অর্থবছরে এ কর্মসূচির বরাদ্দ ৫৭৬ কোটি ৮৫ লাখ টাকা।

নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের প্রাক্কালে সরকার দলীয় নির্বাচনী ইশতেহারের প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নের জন্য এ কর্মসূচি ২০০৯-১০ অর্থবছরে চালু হয়।

পাইলটিং কর্মসূচি হতে ধীরে ধীরে পর্যায়ক্রমে সপ্তম পর্ব পর্যন্ত ন্যাশনাল সার্ভিস কর্মসূচি সম্প্রসারিত হয়েছে। এ পর্যন্ত ৩৭ জেলার ১২৮ উপজেলা এ কর্মসূচি ভুক্ত হয়েছে। কর্ম প্রত্যাশী যুবক ও যুব মহিলা যারা শিক্ষিত (উচ্চ মাধ্যমিক ও তার বেশি) এবং বয়স ২৪ থেকে ৩৫ তারা এ কর্মসূচির উপকারভোগী।

এদিকে সংসদ সচিবালয় থেকে পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বৈঠকে জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ ভবন সংলগ্ন পরিত্যক্ত সুইমিং পুলটি ভেঙে ২৫-৩০ তলা বিশিষ্ট একটি মাল্টিপারপাস বিল্ডিং তৈরির সুপারিশ করেছে কমিটি।

বৈঠকে বাংলাদেশ তায়কোয়ান্দো ফেডারেশনের খেলোয়াড়দের প্রশিক্ষণের জন্য একজন পুরুষ ও একজন মহিলা কোচ নিয়োগ, প্রশিক্ষণের জন্য আন্তর্জাতিক মানের স্থায়ী জায়গা/মাঠের ব্যবস্থা এবং অর্থ বরাদ্দ বৃদ্ধির জন্য সুপারিশ করে কমিটি।

কমিটির সভাপতি আবদুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকবের সভাপতিত্বে বৈঠকে কমিটির সদস্য যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মো. জাহিদ আহসান রাসেল, আব্দুস সালাম মুর্শেদী, জুয়েল আরেং এবং এ এম নাঈমুর রহমান বৈঠকে অংশ নেন।

বৈঠকে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের সচিব, বিকেএসপির মহাপরিচালক, বাংলাদেশ তায়কোয়ান্দো ফেডারেশনের সভাপতি, বাংলাদেশ মহিলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক, বিভিন্ন সংস্থা প্রধানসহ যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় এবং সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/এসআই/এইচএন