গ্রামীণ উন্নয়নে নিরলসভাবে কাজ করছে বার্ড: প্রতিমন্ত্রী

গ্রামীণ উন্নয়নে নিরলসভাবে কাজ করছে বার্ড: প্রতিমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৯:৪৩ ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০   আপডেট: ১৩:৫৮ ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০

পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য। ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য। ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য বলেছেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্ন ছিল বাংলাদেশ হবে একটি গণতান্ত্রিক, অসাম্প্রদায়িক, ক্ষুধা ও দারিদ্র্য মুক্ত আধুনিক রাষ্ট্র। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নে লালিত সেই বাংলাদেশকে বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উন্নয়নের লক্ষ্যে বলিষ্ঠ চিত্তে এগিয়ে নিয়ে চলেছেন। তারই ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশ পল্লী উন্নয়ন একাডেমি (বার্ড) দেশের গ্রামীণ উন্নয়নে নিরলসভাবে কাজ করে চলেছে। 

রোববার কুমিল্লায় বাংলাদেশ পল্লী উন্নয়ন একাডেমিতে দুই দিনব্যাপী ৫৩তম বার্ষিক পরিকল্পনা সম্মেলনের সমাপনী অধিবেশনে অনলাইনে যুক্ত হয়ে এসব কথা বলেন তিনি।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রতিমন্ত্রী বলেন, বার্ডের মূল দায়িত্ব হল প্রশিক্ষণ দেয়া, গবেষণা ও প্রায়োগিক গবেষণা পরিচালনা করা এবং পলিসি অ্যাডভোকেসির মাধ্যমে সরকারের উন্নয়ন কার্যক্রমে সহায়তা করা। গত ৬ দশকেরও বেশি সময় ধরে বার্ড এ দায়িত্ব সফলতার সঙ্গে পালন করে আসছে। গ্রামীণ উন্নয়নে বার্ডের উদ্ভাবিত  ‘কুমিল্লা মডেল’ দেশে-বিদেশে প্রশংসিত হয়েছে। বিশ্বের অনেক দেশে এই মডেলটি অনুকরণ করা হয়েছে।

তিনি বলেন, সম্প্রতি বার্ড কুমিল্লা জেলার লাকসাম উপজেলায় কৃষি যান্ত্রিকীকরণ ও সমন্বিত চাষাবাদ বিষয়ক একটি প্রায়োগিক গবেষণা সম্পন্ন করেছে, যেখানে কৃষকের খণ্ড খণ্ড জমিকে একত্রিত করে যান্ত্রিক উপায়ে চাষাবাদ করার মাধ্যমে কম খরচে অধিক ফসল উৎপাদন করা সম্ভব হয়েছে। 

স্বপন ভট্টাচার্য বলেন, আমি বিশ্বাস করি, কৃষি যান্ত্রিকীকরণ ও সমন্বিত চাষাবাদের মডেলটি দেশের অন্যান্য এলাকায় ব্যাপকভাবে বাস্তবায়ন করা গেলে কৃষির উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে কৃষি শ্রমিকের ঘাটতির সমস্যা বহুলাংশে সমাধান হবে। 

তিনি আরো বলেন, আমার দেখা খুব কম সংখ্যক প্রতিষ্ঠান আছে যারা তাদের বিগত বছরের কাজের মূল্যায়ন ও আগামী বছরের কর্মপরিকল্পনা প্রণয়নের জন্য সংশ্লিষ্ট প্রফেশনালদের নিয়ে এ ধরনের মতবিনিময় কর্মশালার আয়োজন করে থাকে। আমি মনে করি বার্ষিক পরিকল্পনা সম্মেলনের এই ব্যবস্থাটি অন্যান্য সরকারি  ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানও অনুসরণ করতে পারে। 

বার্ডের মহাপরিচালক মো. শাহজাহানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন- কুমিল্লার জেলা প্রশাসক মো. আবুল ফজল মীর, অতিরিক্ত মহাপরিচালক মাসুদুল হক চৌধুরী। এ সম্মেলনে সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয়, বিভাগ ও আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠানের উচ্চ ও মধ্য পর্যায়ের ১০৫ জন প্রতিনিধি অংশ নেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/এসএইচআর/আরএইচ/এইচএন