সামনেই ঈদ, এর আগেই ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়িয়ে নিন তিন উপায়ে

সামনেই ঈদ, এর আগেই ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়িয়ে নিন তিন উপায়ে

লাইফস্টাইল ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৩:০৪ ৬ মে ২০২১   আপডেট: ১৩:০৬ ৬ মে ২০২১

উজ্জ্বল ও কোমল ত্বক। ছবি: সংগৃহীত

উজ্জ্বল ও কোমল ত্বক। ছবি: সংগৃহীত

ঈদ মানেই আনন্দ, ঈদ মানেই খুশি। আর কিছুদিন পরেই আসছে সেই আনন্দের দিনটি। ঈদে সবার ঘরে ঘরেই থাকে উৎসবমুখর পরিবেশ। খাবার থেকে নিজের সাজ সবকিছুতেই থাকে ঈদের ছোঁয়া।

দেখা যায়, রমজানে রোজা থেকে নানা কাজে ব্যস্ততার জন্য অনেকেই নিজের ত্বকের যত্ন নিতে পারেন না। যার কারণে ত্বক তার নিজস্ব উজ্জ্বলতা হারায়। আর ঈদের দিন যদি ত্বক ম্লান দেখায়, তবে তা সহজেই আপনার মন খারাপ করে দেবে। তাই উজ্জ্বলতা ফেরাতে এখন থেকেই চাই ত্বকের সঠিক যত্ন।

রূপচর্চা-বিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদন অবলম্বনে সারা রাত ত্বক পুনর্গঠন ও সার্বিক উন্নয়নে সহায়তা করে এমন কয়েকটি মাস্ক সম্পর্কে জানানো হয়েছে। যা সহজেই আপনার ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়িয়ে তুলবে। চলুন তবে জেনে নেয়া যাক সেই প্যাকগুলো সম্পর্কে-

শসার রস ও জলপাইয়ের তেল

দুই টেবিল চামচ শসার রস ও এক টেবিল চামচ জলপাইয়ের তেল মিশিয়ে মাস্ক তৈরি করুন। মাস্কটি সারা রাত মুখে মেখে পরদিন সকালে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। শসাতে আছে শীতলকারক ক্ষমতা যা ত্বকের জ্বলুনি কমায় ও প্রাকৃতিকভাবে পিএইচয়ের ভারসাম্য রক্ষা করে। অন্যদিকে জলপাইয়ের তেল ত্বকের আর্দ্রতা রক্ষা করে মসৃণভাব আনে।

মধু ও ওটমিল

দুই টেবিল চামচ মধু ও ওটমিল মিশিয়ে নিন। চাইলে এতে কয়েক ফোঁটা গোলাপ জল মেশাতে পারেন। মাস্কটি সারা রাত মুখে মেখে রাখুন। পরদিন সকালে কুসুম গরম পানি দিয়ে আলতো করে মালিশ করে ধুয়ে নিন। ওটমিল ত্বকের মৃত কোষ দূর হবে ও মধু ত্বক আর্দ্র রাখতে সহায়তা করে। এই মাস্ক তৈলাক্ত ও ব্রণ প্রবণ ত্বকে সপ্তাহে দুইবার ব্যবহারে ভালো ফলাফল পাওয়া যায়।

দই ও মধু

এক টেবিল চামচ মধু ও দই মিশিয়ে ত্বকে সারা রাত রেখে দিন। দই ল্যাক্টিক অ্যাসিড সমৃদ্ধ যা ত্বকের মৃত কোষ দূর করে ও ত্বকের ‘ব্রেকআউট’ কমায়। মধু ত্বকের আর্দ্রতা রক্ষা করে প্রাকৃতিক উজ্জ্বলভাব ফুটিয়ে তোলে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এএ