দীর্ঘজীবন পেতে করুন অল্প সময়ে কঠিন ব্যায়াম

বাসায় ব্যায়াম করবেন যেভাবে (পর্ব-২৪)

দীর্ঘজীবন পেতে করুন অল্প সময়ে কঠিন ব্যায়াম

লাইফস্টাইল ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১০:২৮ ৬ মে ২০২১  

দীর্ঘায়ু লাভের উপায়। ছবি: সংগৃহীত

দীর্ঘায়ু লাভের উপায়। ছবি: সংগৃহীত

সুস্থ থাকার জন্য ব্যায়াম করা জরুরি। ব্যায়াম করলে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা শক্তিশালী হয়। দেহ আরও অনেক বেশি কর্মক্ষম হয়। তাছাড়া বিভিন্ন সংক্রমণ থেকেও দূরে থাকা সম্ভব হয়। তাইতো আমাদের সবারই উচিত করোনার এই কঠিন পরিস্থিতিতে নিজেকে সুস্থ রাখার জন্য ব্যায়াম করা।

আমাদের মধ্যে অনেকেই এমন আছেন যারা অনেকদিন ধরেই ব্যায়াম শুরু করবেন বলে ভাবছেন? অথবা প্রতিদিনই ভাবছেন আগামীকাল ‘মর্নিং ওয়াক’য়ে যাবেন! তাহলে আর দেরি নয়, আজ থেকে শরীরচর্চা শুরু করুন।

সম্প্রতি এক গবেষণায় দেখা গেছে অল্প পরিমাণে হলেও বলিষ্ঠ কর্মকাণ্ডে যুক্ত থাকলে অকাল মৃত্যুর ঝুঁকি কমায়।

মধ্যবয়স্ক ও বয়স্কদের উপর করা অস্ট্রেলিয়ার এক গবেষণার ফলাফলে দেখা গেছে শারীরিক কর্মকাণ্ডের কারণে জোরে জোরে নিঃশ্বাস ফেলা এবং ঘাম তৈরি হয় যা সময়ের আগে দুনিয়া থেকে চলে যাওয়া প্রতিরোধ করতে পারে।

অস্ট্রেলিয়ার কুইন্সল্যান্ডের জেমসকুক ইউনিভার্সিটির প্রধান গবেষক ক্লাউস গিবেল বলেন, “শারীরিক কর্মকাণ্ড যেকোনো বয়সের নারী ও পুরুষের জন্য সুফল বয়ে আনার ক্ষেত্রে প্রযোজ্য এবং এককভাবে পুরো সময় জুড়ে কর্মক্ষম রাখে।”

তিনি আরও বলেন, “গবেষণার ফলাফলে দেখা গেছে, আপনি মোটা হন বা না হন এবং আপনার হৃদরোগ বা ডায়াবেটিস থাকুক বা না থাকুক, যদি কিছু সময়ের জন্য শারীরচর্চা করা যায় তবে দীর্ঘজীবন পাওয়ার ক্ষেত্রে উল্লেখযোগ্য সুফল বয়ে আনতে পারে।”

জরিপ চালানোর জন্য গবেষকরা ছয় বছর ধরে ২ লাখ ৪ হাজার ৫১২ জনকে অনুসরণ করেন। আর সীমিত শারীরিক কর্মকাণ্ডে (যেমন: হালকা-পাতলা সাঁতার, হালকা টেনিস খেলা বা গৃহস্থালী কাজ) জড়িতদের সঙ্গে বলিষ্ঠ কর্মকাণ্ডের (যেমন: জগিং, অ্যারোবিক্স বা প্রতিযোগিতাপূর্ণ টেনিস খেলা) সঙ্গে জড়িতদের তুলনামূলক পর্যালোচনা করেন।   

যাদের কর্মকাণ্ড খুব বেশি খাটনিকর নয় এবং যারা শতকরা ৩০ ভাগেরও বেশি মাত্রায় কঠিন কর্মকাণ্ডে জড়িত— এরকমভাবে অংশগ্রহণকারীদের বিভিন্ন শ্রেণিতে ভাগ করে গবেষণা চালানো হয়।

দেখা গেছে যাদের কর্মকাণ্ড বেশি কঠিন নয়, তাদের চাইতে যারা শতকরা ৩০ ভাগ বেশি কঠিন কর্মকাণ্ড করেন তাদের মৃত্যুর হার শতকরা নয় ভাগ কম।

আর সেই সময়ের মধ্যে যাদের শরীরচর্চার রুটিন শতকরা ৩০ ভাগেরও বেশি কঠিন ছিল তাদের মৃত্যুর হার ১৩ শতাংশ কমেছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এএ