মুসলিম বিয়ের রেজিস্ট্রেশন খরচের সঠিক তথ্য

মুসলিম বিয়ের রেজিস্ট্রেশন খরচের সঠিক তথ্য

লাইফস্টাইল ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৪:৫৭ ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০  

মুসলিম বিয়ের রেজিস্ট্রেশন খরচ

মুসলিম বিয়ের রেজিস্ট্রেশন খরচ

প্রতিটি মানুষকেই একটি নির্দিষ্ট সময়ের পর বিয়ের বন্ধনে আবদ্ধ হতে হয়। বিয়ে একটি সামজিক নিয়ম ও পারিবারিক বন্ধন। যা দুজন মানুষের মতের মিলেই হয়ে থাকে। এক কথায়, বিয়ের মাধ্যমে নর-নারী হৃদয়ের বন্ধনে আবদ্ধ হন।

যুগলবন্দি হওয়ার এ প্রক্রিয়াকে অনেকেই অনেক নামে অবিহিত করেন। বাংলায় একে ‘বিবাহ’ বা ‘বিয়ে’ বলা হয়। উর্দু ও ফারসি ভাষায় একে বলা হয় ‘শাদি’, আর আরবিতে বলা হয় ‘নিকাহ’। বিয়েতে রেজিস্ট্রেশন খরচও হয়ে থাকে।

চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটরের দেয়া তথ্য অনুযায়ী, মুসলিম বিয়ের ক্ষেত্রে দেনমোহরের পরিমাণের ওপর ভিত্তি করে বিয়ের রেজিস্ট্রেশনের ফি নির্ধারণ হয়ে থাকে।

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার মুসলিম বিবাহ ও তালাক (নিবন্ধন) বিধিমালা-২০০৯; এপ্রিল ১০, ২০১১ তারিখে সংশোধন করেছে।

অত্র আইনের ১০ ধারা মোতাবেক নিকাহ রেজিস্টার বিবাহ রেজিস্ট্রিকরণের জন্য ৪ লাখ টাকা পর্যন্ত দেনমোহরের ক্ষেত্রে এক হাজার বা উহার অংশ বিশেষের জন্য ১২.৫০ টাকা হারে ফি আদায় করতে পারবে।

দেনমোহর ৪ লাখ টাকার অধিক হলে পরবর্তী প্রতি লাখে ১০০ টাকা হারে আদায় করবেন। তবে দেনমোহরের পরিমান যাই হোক না কেন সর্বনিম্ন ফি ২০০ টাকার কম হবে না। সরকার সময়ে সময়ে প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে এই ফি পরিবর্তন ও ধার্য করে থাকে।

রেজিস্ট্রেশন ফি জমা দিলে নিকাহ রেজিস্ট্রার একটি প্রাপ্তি রশিদ দেবেন। মুসলিম বিয়ে রেজিস্ট্রেশনের পর নিকাহ রেজিস্ট্রার বাধ্যতামূলকভাবে বর ও কনে পক্ষকে বিয়ের কাবিননামার সত্যায়িত কপি দেবেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/এএ