পি কে হালদারকে ধরতে ইন্টারপোলের সাহায্য চায় দুদক

গ্রাহকের কোটি টাকা লোপাট

পি কে হালদারকে ধরতে ইন্টারপোলের সাহায্য চায় দুদক

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ০৪:০৬ ২৬ অক্টোবর ২০২০  

পি কে হালদার

পি কে হালদার

আদালতের নিষেধাজ্ঞা থাকার পরও দেশ ছেড়ে চলে যাওয়া এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংকের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রশান্ত কুমার (পি কে) হালদারকে ইন্টারপোলের মাধ্যমে গ্রেফতার করার জন্য পুলিশ মহাপরিদর্শককে (আইজিপি) নির্দেশ দিতে হাইকোর্টে আবেদন করবে দুর্নীতি দমন কমিশন। 

একই সঙ্গে পি কে হালদারসহ সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননারও অভিযোগ আনা হবে। দেশে ফেরার জন্য হাইকোর্টের কাছ থেকে অনুমতি নেয়ার পরও নির্ধারিত দিন ও সময়ে দেশে না ফেরায় এই আইনি পদক্ষেপ নিতে যাচ্ছে দুদক। সংস্থার আইনজীবী অ্যাডভোকেট খুরশীদ আলম খান গতকাল রোববার এ তথ্য জানিয়েছেন।

পি কে হালদারের বিরুদ্ধে প্রায় ২৭৫ কোটি টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে মামলা করেছে দুদক। তিনি ইন্টারন্যাশনাল লিজিং অ্যান্ড ফাইন্যান্স সার্ভিসেস লিমিটেডেরও (আইএলএফএসএল) ব্যবস্থাপনা পরিচালক ছিলেন। গ্রাহকের কোটি কোটি টাকা লোপাট করে চলতি বছরের শুরুর দিকে বিদেশে পালিয়ে যান তিনি। এর পর তাকে প্রতিষ্ঠানটির দায়িত্ব থেকে অপসারণ করা হয়। পরে তিনি টাকা উদ্ধার করে দেয়ার কথা জানিয়ে আইএলএফএসএলের সঙ্গে যোগাযোগ করেন।

পি কে হালদার নিরাপদে দেশে ফিরে যাতে আদালতের হেফাজতে যেতে পারেন সে জন্য হাইকোর্টের নির্দেশনা চেয়ে গত ৭ সেপ্টেম্বর আবেদন করে নন-ব্যাংকিং আর্থিক প্রতিষ্ঠান আইএলএফএসএল। গত ২১ অক্টোবর এক আদেশে দেশের বিমানবন্দরে পা রাখামাত্রই পি কে হালদারকে গ্রেফতার করতে নির্দেশ দেন আদালত। কিন্তু তিনি নির্ধারিত দিনে দেশে ফেরেননি। গত শুক্রবার আইএলএফএসএলকে জানিয়েছেন, তিনি করোনা উপসর্গে আক্রান্ত। এ কারণে দেশে ফিরতে পারছেন না। দেশে ফেরার পরবর্তী তারিখ ও সময় পরে জানানো হবে। এই চিঠির কপি আইএলএফএসএল তার আইনজীবী ব্যারিস্টার মাহফুজুর রহমান মিলনের মাধ্যমে শনিবার দুদক ও অ্যাটর্নি জেনারেল কার্যালয়কে দিয়েছে।

এ বিষয়ে আইএলএফএসএলের আইনজীবী ব্যারিস্টার মাহফুজুর রহমান মিলন গতকাল বলেন, হাইকোর্ট খুললে বিষয়টি আদালতকেও অবহিত করা হবে।

অ্যাটর্নি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিন বলেন, কোনো পলাতক ব্যক্তি আত্মসমর্পণ করার আগে কোনো ধরনের আইনি সুবিধা পেতে পারেন না। তিনি (পি কে হালদার) মিথ্যা তথ্য দিলে তার বিরুদ্ধে আদালতই ব্যবস্থা নেবেন। 

তিনি বলেন, পি কে হালদার অসুস্থ কি না জানি না। হাইকোর্টের নির্দেশ ও গ্রেফতারি পরোয়ানা থাকায় বিমানবন্দরে নামার সঙ্গে সঙ্গে তাকে গ্রেফতার করা হবে।

দুদকের আইনজীবী অ্যাডভোকেট খুরশীদ আলম খান বলেন, আইএলএফএসএলের একটি চিঠি পেয়েছি। কিন্তু তিনি যে অসুস্থ তার কোনো প্রমাণ নেই। কার্যত এই চিঠি দেয়াটা আদালত অবমাননার শামিল।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএ