দেড় মাসের নববধূ ৪ মাসের অন্তঃসত্ত্বা, পুলিশের সাহায্য চাইলেন হতভম্ব স্বামী

দেড় মাসের নববধূ ৪ মাসের অন্তঃসত্ত্বা, পুলিশের সাহায্য চাইলেন হতভম্ব স্বামী

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৭:৪২ ১৮ জুন ২০২২  

ছবি: প্রতীকী

ছবি: প্রতীকী

মাত্র দেড় মাস হয়েছে বিয়ে হয়েছে। এরই মধ্যে জানা গেলে নববধূ চার মাসের অন্তঃসত্ত্বা। চিকিৎসকের কাছ থেকে এমন কথা শুনে হতভম্ব স্বামী গেলেন পুলিশের কাছে। স্ত্রীর বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগে থানায় অভিযোগ করেছেন তিনি। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের উত্তরপ্রদেশের মহারাজগঞ্জে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম সংবাদ প্রতিদিনের খবরে বলা হয়, পারিবারিকভাবে ঐ যুবকের বিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। এক আত্মীয়ের মাধ্যমে পাত্রীর খোঁজ পায় তার পরিবার। পরে উভয় পরিবারের সম্মতিতে ঐ পাত্রীর সঙ্গে তার বিয়ের দিনক্ষণও ঠিক হয়। নির্ধারিত দিনে বিয়েও হয় দুজনের।

বিয়ের প্রথম দেড়মাস সুখে-শান্তিতেই সময় কাটছিল নবদম্পতির। বিপত্তি ঘটে স্ত্রী অসুস্থ হয়ে পড়লে। হঠাৎই একদিন নববধূর পেটে ব্যথা শুরু হয়। অসহ্য যন্ত্রণায় কার্যত ছটফট করতে শুরু করেন তিনি।

আরো পড়ুন> মেঘালয়ের মৌসিনরামে ৮৩ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ বৃষ্টি
 
এরপর ঐ নববধূকে চিকিৎসকের কাছে নিয়ে যাওয়া হয়। তার কী সমস্যা হয়েছে তা জানতে নানা শারীরিক পরীক্ষা-নিরীক্ষা করেন চিকিৎসক। এর মধ্যে আলট্রাসনোগ্রাফির প্রতিবেদন পেয়ে সবাই হতভম্ব হয়ে যান। কারণ, মাত্র দেড় মাসের বিবাহিত এ নারী চার মাসের অন্তঃসত্ত্বা!

কীভাবে এমন কাণ্ড ঘটল তা বুঝতেই পারছেন না নববধূর স্বামী। ঐ নববধূর শ্বশুরবাড়ির লোকজনও এ নিয়ে আছেন ধোঁয়াশায়। গৃহবধূর বাপের বাড়ির লোকজনকে পুরো বিষয়টি জানিয়েছেন তার স্বামী। মেয়ে যে অন্তঃসত্ত্বা, সে কথা গোপন করে বিয়ে দেওয়া হয়েছিল বলেই দাবি ঐ যুবকের। নববধূ এবং তার পরিবারের বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগে থানার শরণাপন্ন হন তিনি।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমএস