‘বিপজ্জনক অপরাধের’ অভিযোগে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি

‘বিপজ্জনক অপরাধের’ অভিযোগে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৩:৪৩ ১৮ জানুয়ারি ২০২১  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

ইউএস ক্যাপিটলে তাণ্ডবে অংশগ্রহণকারীদের উস্কানির দায়ে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভসে অভিশংসন প্রস্তাব এনেছিলেন কংগ্রেসম্যান জেমি রাসকিন। নিম্নকক্ষে ডোনাল্ড ট্রাম্পকে অভিশংসনে সফলতার পর এবার তিনি সিনেটে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে মামলার নেতৃত্ব দিচ্ছেন। মামলায় অভিযোগ আনা হয়েছে, কংগ্রেস ভবন ক্যাপিটলে হামলাকারীদের উসকানি দেওয়ার মধ্য দিয়ে বিদায়ী প্রেসিডেন্ট যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে ইতিহাসের ‘সবচেয়ে বিপজ্জনক অপরাধ’ করেছেন। সংবাদ সংস্থা অ্যাসোসিয়েটেড প্রেস (এপি) একথা জানিয়েছে।

ট্রাম্পের বিরুদ্ধে এই সপ্তাহে সিনেটে বিচার শুরু হতে পারে। ডেমোক্র্যাট নেতা জো বাইডেনও এ সপ্তাহেই প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নিতে যাচ্ছেন। তবে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে আনা অভিশংসন প্রস্তাবটি হাউসের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসি কখন সিনেটে পাঠাবেন তা জানাননি রাসকিন। শুধু বলেছেন, শিগগিরই এটা আসা উচিত। যদিও পেলোসি আনুষ্ঠানিক ক্ষমতা হস্তান্তর প্রক্রিয়ায় যুক্ত রয়েছেন। সেখানে ব্যস্ততা রয়েছে তার। তবে এটা পরিস্কার যে, ডেমোক্র্যাটরা ট্রাম্পের সিনেট বিচারের চেয়ে বাইডেনের ক্ষমতাগ্রহণ এবং শুরুর দিকের কাজগুলোর প্রতি বেশি মনোযোগ দিতে চাইছেন। বাইডেনের এক দশমিক ৯ ট্রিলিয়ন ডলারের কোভিড সহায়তা ও অর্থনীতি পুনরুদ্ধার প্যাকেজ নিয়ে জরুরিভিত্তিতে কাজ করতে চান তারা।

গত বুধবার নিম্নকক্ষ হাউস অব রিপ্রেজেরন্টেটিভসের ভোটে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে অভিশংসন প্রস্তাব পাস হয়। ক্যাপিটলে হামলাকারীদের উস্কানি দেয়ায় ট্রাম্পের বিরুদ্ধে হাউসে ‘রাষ্ট্রদ্রোহিতায় উস্কানি’র অভিযোগ আনা হয়।

জানা গেছে, সিনেটে দুই-তৃতীয়াংশ ভোট অর্থাৎ ১০০ জনের মধ্যে অন্তত ৬৭ জনের ভোট পেলে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে অভিশংসন পাস হবে। এর মধ্যে ট্রাম্পের প্রেসিডেন্টের মেয়াদও শেষ হয়ে যাবে। তবে পরেও সিনেটে বিচারের সুযোগ রয়েছে। সে ক্ষেত্রে ট্রাম্প দোষী সাব্যস্ত হলে পরবর্তী সময়ে আর কখনই প্রেসিডেন্ট পদের জন্য লড়তে পারবেন না তিনি। 

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএএইচ