জাপানে বিড়ালছানার চেয়েও সিংহের দাম কম!

জাপানে বিড়ালছানার চেয়েও সিংহের দাম কম!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৪:৫৯ ২৮ নভেম্বর ২০২০   আপডেট: ১৯:২৫ ২৮ নভেম্বর ২০২০

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

প্রযুক্তি নির্ভর দেশ জাপান। সেখানকার মানুষের দৈনন্দিন জীবনে সম্পৃক্ত নানা অত্যাধুনিক প্রযুক্তি। এসব সুবিধা পেতে তাদের করতে হচ্ছে বাড়তি খরচ। যার কারণে ঐতিহ্যবাহী বিনোদনের মাধ্যমগুলো থেকে মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছেন অনেকে। জাপানের চিড়িয়াখানাগুলোতে ভিড় এক্ষণ তেমন নেই বললেই চলে। বনের রাজা খ্যাত সিংহের প্রতি মানুষের আকর্ষণ কমে গেছে৷

বন্যপ্রাণীর ব্যবসা প্রতিষ্ঠান রেপ জাপান-এর প্রতিষ্ঠাতা ও প্রাণী ব্যবসায়ী স্যুওশি শিরাওয়া জার্মান সংবাদসংস্থা ডয়চে ভেলেকে জানান, জাপানে এখন সিংহ খুবই সস্তায় পাওয়া যায়, প্রতিটি চিড়িয়াখানা ও বন্যপ্রাণী পার্কগুলোতে সিংহের চাহিদা আগে অনেক বেশি ছিল এবং সিংহকে সবচেয়ে বড় শিকারি হিসাবে দেখা হতো। এখন সিংহের জনপ্রিয়তা কমে গিয়েছে। একটি সিংহের মূল্য ১০০,০০০ ইয়েন অর্থাৎ ৮১২ ইউরো বা ৯৬৬ ইউএস ডলারের কমও হতে পারে। এমনকি, বিনামূল্যে সিংহ দিয়ে দেওয়ার ঘটনাও রয়েছে বলে তিনি জানান।

অন্যদিকে, পোষা প্রাণীর দোকানে একটি বিড়ালছানার মূল্য সিংহের দ্বিগুণ অর্থাৎ ৪০০,০০০ ইয়েন বা ৩,২৪৮ ইউরো৷ টোকিও ইউনিভার্সিটির পরিবেশ বিষয়ক বিশেষজ্ঞ কেভিন শর্ট বলেন, সিংহ লালনপালন ব্যয়বহুল, সিংহের খিদে বেশি পায়, তাছাড়া জাপানে মাংসের মূল্যও অনেক বেশি। সিংহের জন্য খাঁচার প্রয়োজন, বেবি বা সিংহ শাবকরা দর্শকদের কাছে টানতে পারে, তবে প্রাপ্তবয়স্ক সিংহদের প্রতি মানুষের আকর্ষণ অনেক কম।

সিংহের প্রতি আকর্ষণ কমে যাওয়ার কারণগুলোর মধ্যে রয়েছে, বর্তমান প্রযুক্তিনির্ভর বিনোদন। এযুগের শিশু, তরুণদের চিড়িয়াখানা বা বন্যপ্রাণীর প্রতি আগ্রহের পরিবর্তে অনলাইন গেমস বা প্রযুক্তিনির্ভর বিনোদনে বেশি আগ্রহ দেখা যায়।

চিড়িয়াখানার প্রধান লক্ষ্য দর্শনার্থী ও জাপানের জনসংখ্যা কমার ফলে স্বাভাবিকভাবেই দর্শনার্থীর সংখ্যা কমেছে। জনসংখ্যা কমার প্রবণতা অব্যাহত থাকলে এই শতাব্দীর শেষ নাগাদ আরো ৫০ মিলিয়ন মানুষ কমে যাবে৷ শিশুদের নিয়ে তাদের তরুণ মা-বাবারাও আর চিড়িয়াখানায় যাবে না।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএএইচ/মাহাদী