মধ্যপ্রদেশে গরুর জন্য মন্ত্রিসভা, দিতে হবে কর

মধ্যপ্রদেশে গরুর জন্য মন্ত্রিসভা, দিতে হবে কর

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১২:২০ ২৪ নভেম্বর ২০২০  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

ভারতে গরুকে স্রষ্টার মর্যাদা দিয়ে থাকেন সনাতন ধর্মালম্বীয় মানুষরা। সেখানকার প্রায় অধিকাংশ স্থানেই প্রাণীটির পূজা করা হয়ে থাকে। এমনকি সমগ্র দেশে গরু হত্যা নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এরইমধ্যে এবার মধ্যপ্রদেশ সরকার যেন সবাইকে ছাড়িয়ে গেল।

রাজ্যটিতে গরুর জন্য আলাদা মন্ত্রিসভা গঠন, অভয়ারণ্য তৈরি এবং রক্ষণাবেক্ষণের জন্য কর বসানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বিজেপির মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহান। আর সেই মন্ত্রিসভার নাম দেয়া হয়েছে ‘কাউ ক্যাবিনেট’।

সংবাদমাধ্যম ডয়চে ভেলের খবরে বলা হয়, মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী এখন গরুর জন্য যাবতীয় কর্মসূচি হাতে নিচ্ছেন। গরু-রাজনীতিতে তিনি বিরোধীসহ নিজ দলেরও সবাইকে ছাড়িয়ে অনেকটাই এগিয়ে গেছেন।

কাউ ক্যাবিনেটে পশুপালন, বন, পঞ্চায়েত, কৃষি, স্বরাষ্ট্র ও অর্থ- এই ছয়টি মন্ত্রণালয় রাখা হয়েছে। তারা গরুর রক্ষণাবেক্ষণ ও কল্যাণের বিষয়টি দেখবে। সম্প্রতি মন্ত্রিসভার একটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয় এবং সেখানে পুরো রাজ্যজুড়ে গোশালা তৈরির সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

রোববার গোপাষ্টমী উপলক্ষে আগর মালোয়ায় ‘কামধেনু গো অভয়ারণ্যে’ বক্তব্য রাখতে গিয়ে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহান জানান, গো-মাতার (গরু) কল্যাণ ও গোশালা তৈরির জন্য সামান্য কর বসানো হবে। আমরা সকালে প্রথম রুটি গরুকে খাওয়াই এবং রাতে শেষ রুটি দেই কুকুরকে। তাই গরুর জন্য কিছু অর্থ মানুষের কাছ থেকে নেয়া হতে পারে।

শুধু তাই নয়, গরুদের জন্য দুই হাজার শেলটার হোম গঠন করা হবে। একাধিক এনজিও সেগুলোর রক্ষণাবেক্ষণ করবে। এমনকি গো ক্যাবিনেটের প্রথম বৈঠকে মন্ত্রী পরিষদ সমিতি গঠনের কথাও বলেন মুখ্যমন্ত্রী। এর পাশাপাশি তিনি ঘোষণা করেন, অঙ্গনওয়াড়িতে শিশুদের বিনামূল্যে গরুর দুধ খাওয়ানো হবে।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ভারতে বাঘ, সিংহ, গন্ডারের জন্য অভয়ারণ্য থাকলেও গরুর জন্য এতদিন কোনো ব্যবস্থা ছিল না। এছাড়া কুমির ও বিলুপ্তপ্রায় প্রজাতির জন্যও রয়েছে বিশেষ ব্যবস্থা। তাই মধ্যপ্রদেশ সরকারের এই পরিকল্পনা অভিনব ও প্রশংসার যোগ্য।

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালে দেশের প্রথম গো অভয়ারণ্য ‘কামধেনু গো অভয়ারণ্য’ নির্মিত হয় মধ্যপ্রদেশের আগর মালোয়ায়। প্রায় ৩২ কোটি টাকা খরচ করে তৈরি হয়েছিল ওই অভয়ারণ্য। সেই আগর মালোয়াতেই গো মন্ত্রণালয়ের প্রথম বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হলো।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএএইচ