সংঘাতে ১ হাজার ১১৯ সেনা নিহতের দাবি আর্মেনিয়ার

সংঘাতে ১ হাজার ১১৯ সেনা নিহতের দাবি আর্মেনিয়ার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৭:০৩ ২৯ অক্টোবর ২০২০  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

বিরোধপূর্ণ অঞ্চল নাগর্নো-কারাবাখ অঞ্চলের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় দাবি করেছে, আজারবাইজানের সেনাবাহিনীর সঙ্গে সংঘাতে নতুন করে আরো ৫১ সেনা নিহত হয়েছে। এ নিয়ে গত ২৭ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হওয়া সংঘাতে বৃহস্পতিবার তাদের সেনা নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে এক হাজার ১১৯ জনে। সংবাদ সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

নাগর্নো-কারাবাখ অঞ্চল নিয়ে আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের পুরনো সংঘাত গত ২৭ সেপ্টেম্বর থেকে নতুন করে আবার শুরু হয়। এরইমধ্যে সংঘাতে কয়েকশ’ মানুষের প্রাণহানি হয়েছে। সংঘাত নিরসনে রাশিয়ার উদ্যোগে আর্মেনিয়া-আজারবাইজান দুটি অস্ত্রবিরতি চুক্তিতে পৌঁছার পরও লড়াই থামেনি। সবশেষ যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষ থেকে সংঘাত নিরসনের প্রচেষ্টা চালানো হয়। এর অংশ হিসেবে তৃতীয় দফার অস্ত্রবিরতিতে পৌঁছায় দুই দেশ।

স্থানীয় সময় গত সোমবার সকাল থেকে অস্ত্রবিরতি কার্যকর হয়। এর কয়েক মিনিটের মাথায় আজারবাইজানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের বিবৃতিতে বলা হয়, আর্মেনীয় বাহিনী টের্টের ও লাচিন অঞ্চলের বিভিন্ন গ্রামে শেল নিক্ষেপ করেছে। ফলে কার্যত ভেঙে পড়ে তৃতীয় দফার অস্ত্রবিরতিও।

উল্লেখ্য, নাগর্নো-কারাবাখ অঞ্চলটি আজারবাইজানের ভেতরে অবস্থিত হলেও ইয়েরেভান সরকারের পৃষ্ঠপোষকতা নিয়ে তা নিয়ন্ত্রণ করছে আর্মেনীয় বিচ্ছিন্নতাবাদীরা। ১৯৮০-এর দশকের শেষদিকে অঞ্চলটির নিয়ন্ত্রণ নিয়ে আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের মধ্যে সংঘাত শুরু হয়। ১৯৯১ সালে সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়নের পতনের মুহূর্তে সংঘর্ষ চূড়ান্ত আকার ধারণ করে। ১৯৯৪ সালে দুই পক্ষের মধ্যে যুদ্ধবিরতি প্রতিষ্ঠার আগ পর্যন্ত এই সংঘর্ষে ৩০ হাজার মানুষ নিহত হয়। পরে ২০১৬ এবং এই বছরের শুরুতেও সংঘাতে জড়ায় দুই পক্ষ।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএএইচ