মার্কিন আগ্রাসন বন্ধে আরো জোর দিতে চান শি জিনপিং

মার্কিন আগ্রাসন বন্ধে আরো জোর দিতে চান শি জিনপিং

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৮:৪৪ ২২ অক্টোবর ২০২০   আপডেট: ১৮:৫৬ ২২ অক্টোবর ২০২০

ছবি: শি জিনপিং

ছবি: শি জিনপিং

১৯৫০ সালের ১৯ অক্টোবর চীনের পিপলস ভলান্টিয়ার আর্মি (সিপিভি) উত্তর কোরিয়ায় প্রবেশ করে মার্কিন নেতৃত্বাধীন জোটের সেনাদের চীনা সীমান্তের দিকে অগ্রসর হওয়ার পথে বাধা দিয়েছিল। এ ঘটনার দীর্ঘ সাত দশক পর চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং কোরীয় যুদ্ধে চীনের অংশগ্রহণ নিয়ে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে সেই সিপিভি বাহিনীর সদস্যদের প্রশংসায় ভাসালেন।

চীনা রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা জিনহুয়া এজেন্সি জানায়, অনুষ্ঠানে শি জিনপিং বলেন, ‘এর মাধ্যমে সিপিভি সেনাদের বীরত্ব ও নির্ভীক চেতনা, চীনা জনগণের দেশপ্রেম এবং আধিপত্যকে অস্বীকার ও শান্তি সুরক্ষার জন্য তাদের দৃঢ় সংকল্প প্রমাণীত হয়।’

তিনি বলেন, ‘মার্কিন আগ্রাসন রুখতে ও উত্তর কোরিয়ার সাহায্যার্থে অংশ নেয়া এই যুদ্ধে বিজয় লাভ আসলে ছিল ন্যায়বিচার, শান্তি এবং জনগণের বিজয়।’

শি জিনপিং আরো বলেন, ‘সেই যুদ্ধে বিজয়ের চেতনা চীনা জনগণ এবং সমগ্র জাতিকে সব অসুবিধা ও বাধা অতিক্রম করতে এবং সব শত্রুদের বিরুদ্ধে জয়ী হতে অনুপ্রাণিত করবে।’

চীন কোন শত্রুদের মুখোমুখি হতে পারে সে সম্পর্কে নির্দিষ্ট করে কোনো মন্তব্য করেননি শি, এর পরিবর্তে তিনি ‘চীনা জাতির মহান পুনর্জীবন’ এর জন্য রূপক যুদ্ধের দিকে মনোনিবেশ করেছেন। তবে সাম্প্রতিক সময় ও গত কয়েক বছরের ঘটনা প্রবাহ থেকে সহজেই অনুমেয় চীনের শত্রু বলতে তিনি কাদেরকে বুঝিয়েছেন।

চীনের পুরনো শত্রু যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে বর্তমানে দেশটির বেশ উত্তেজনা চলছে। বাণিজ্যিক শুল্কারোপ, কূটনৈতিক জটিলতাসহ বিভিন্ন বিষয়ে পাল্টাপাল্টি পদক্ষেপ নেয়ার ঘটনায় দুই দেশের মধ্যকার সম্পর্ক বর্তমানে তলায় গিয়ে ঠেকেছে।

১৯৭৯ সালে এই দুই দেশের মধ্যে সম্পর্ক স্থাপিত হলেও চীনা প্রেসিডেন্ট তার বক্তব্যে দুই দেশের মধ্যকার অতীতের সংঘাতকেই বারবার সামনে নিয়ে এসেছেন।

চীন সরকার কোরীয় যুদ্ধকে শুধু একটি যুদ্ধ নয়, বরং শক্তিশালী প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে বিজয় ও নয়া চীনের সক্ষমতার প্রমাণ হিসেবে দেখে থাকে।

২০১৮ সালে যুক্তরাষ্ট্রের ট্রাম্প প্রশাসন চীনের বিরুদ্ধে বাণিজ্য শুল্কারোপ ঘোষণার পর থেকে চীন অতীতের সেই কোরীয় যুদ্ধের কথা বারবার স্মরণ করিয়ে দেয়ার চেষ্টা করছে।

জিনহুয়া জানিয়েছে, কোরীয় যুদ্ধের কথা স্মরণ করিয়ে দেয়ার মাধ্যমে শি জিনপিং মূলত চীনের সংবাদমাধ্যমসহ বিভিন্ন সংস্থাকে যুক্তরাষ্ট্রের আগ্রাসনের দিকে দৃষ্টিপাত করাতে চাইছেন এবং তিনি চাইছেন এই আগ্রাসন বন্ধে আরো বেশি জোর দিতে।

ডেইলি বাংলাদেশ/মাহাদী