নাগোর্নো-কারাবাখে আর্মেনিয়ার নিহত সেনার সংখ্যা বেড়ে ৭১০

নাগোর্নো-কারাবাখে আর্মেনিয়ার নিহত সেনার সংখ্যা বেড়ে ৭১০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১০:৫৭ ১৯ অক্টোবর ২০২০   আপডেট: ১১:০২ ১৯ অক্টোবর ২০২০

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

কিছুদিন আগে রাশিয়ার মধ্যস্থতায় যুদ্ধবিরতিতে সম্মত হয়েছে আর্মেনিয়া ও আজারবাইজান। তবে এরপরও থামছে না তাদের মধ্যকার যুদ্ধ। নাগোর্নো-কারাবাখ নিয়ে সৃষ্ট এই যুদ্ধে রোববার আর্মেনিয়ার আরো ৩৭ সেনা সদস্যের মৃত্যু হয়েছে। এতে দেশটির মোট সামরিক বাহিনীর সদস্যের মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৭১০ জনে। সংবাদমাধ্যম আল জাজিরার এক প্রতিবেদন এ তথ্য জানানো হয়েছে।

জানা গেছে, শনিবার মধ্যরাতে মানবিক যুদ্ধবিরতি ঘোষণার পর আর্মেনিয়া তাদের নিহত সেনাদের সমাহিত করার সিদ্ধান্ত নেয়। রোববার তারা অন্তেষ্টিক্রীয়ার আয়োজন করে। শুশা শহরে এই আয়োজনে অংশ নেয় সতীর্থ সামরিক বাহিনীর সদস্য ও পরিবারের সদস্যরা। 

২৭ সেপ্টেম্বর থেকে নাগোর্নো-কারাবাখ অঞ্চলের নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে যুদ্ধ শুরু করে আজারবাইজান ও আর্মেনিয়া।

নাগোর্নো-কারাবাখ অঞ্চলটি মূলত আজারবাইজানের অংশ। তবে বহুবছর ধরে সেটি আর্মেনিয়া শাসন করে আসছে। ১৯৯৪ সালের যুদ্ধের পর থেকে সেখানে আর্মেনিয়ার সেনাবাহিনী রয়েছে।

আজারবাইজানের প্রেসিডেন্ট ইলহাম আলিয়েভ যুদ্ধের শুরুতে জানিয়েছিলেন একমাত্র তখনই তারা যুদ্ধ থামাবে যখন আর্মেনিয়া নাগোর্নো-কারাবাখ অঞ্চল ছেড়ে যাবে। আজারবাইজান তাদের রাষ্ট্রাধীন অঞ্চলের অখণ্ডতা পুনরুদ্ধার করছে এবং সেটা উদ্ধার না হওয়া পর্যন্ত তারা থামবে না।

এ পর্যন্ত দুটি দেশ একাধিকবার যুদ্ধবিরতি ঘোষণা করেও সেটা ভেঙেছে। হামলা করেছে একে-অপরকে। এই হামলায় সামিরক বাহিনীর সদস্যদের পাশাপাশি শত শত বেসামরিক মানুষের মৃত্যু হয়েছে। গৃহহীন হয়েছে হাজার হাজার মানুষ।

সূত্র: আল জাজিরা

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএএইচ