পানির মাধ্যমে বিষপ্রয়োগ করা হয়েছিলো নাভালনিকে

পানির মাধ্যমে বিষপ্রয়োগ করা হয়েছিলো নাভালনিকে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৯:৪৯ ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২০   আপডেট: ০৮:৫৯ ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

রাশিয়ার বিরোধী দলীয় নেতা আলেক্সেই নাভালনির শরীরে নভিচক নামের নার্ভ এজেন্টের অস্তিত্ব পাওয়ার দাবি করেছিল জার্মান চিকিৎসকরা। শুরু থেকেই তার দলের ধারণা নাভালনিকে বিমানবন্দরে বিষ দেয়া হয়েছে। তবে এবার জানা গেল, সাইবেরিয়ার তোমস্ক শহরের যে হোটেলের রুমে নাভালনি ছিলেন সেখানকার একটি পানির খালি বোতলে নভিচক শনাক্ত করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার নাভালনির ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে পোস্ট করা এক ভিডিওতে দেখা গেছে, ২০ আগস্ট নাভালনি জান্দার হোটেল ছাড়ার কিছুক্ষণ পরেই হোটেলে কোনো জিনিসপত্র ছেড়ে যাচ্ছেন কিনা তা দেখছিলেন তার দলের সদস্যরা। এর এক ঘণ্টা পরেই তারা নাভালনির আকস্মিক অচেতন হওয়ার কথা জানতে পারেন।

ওই পোস্টে বলা হয়, তদন্তের কাজে লাগতে পারে এমন সবকিছু একসঙ্গে করে জার্মানির চিকিৎসকদের কাছে পৌঁছানোর সিদ্ধান্ত নেয় তার দল। এই ঘটনার তদন্ত যে রাশিয়ায় হবে না সেটি একেবারেই নিশ্চিত ছিলেন বলেও জানায় তার দল। ভিডিওতে তার দলের সদস্যদের কিছু জিনিসপত্রের সঙ্গে ‘হলি স্প্রিং’ নামের কয়েকটি মিনারেল পানির খালি বোতল নিতে দেখা গেছে। ওই পানির বোতলে নভিচক পাওয়া গেছে বলে জানানো হয়েছে।

পোস্টে বলা হয়, প্রায় দুই সপ্তাহ পর তোমস্ক হোটেল রুমের পানির বোতল থেকে নভিচক খুঁজে পেয়েছে জার্মান ল্যাবরেটরি। এরপর আরো ল্যাবে পরীক্ষা শেষে নিশ্চিত হওয়া গেছে যে নাভালনিকে কোন বিষ দেয়া হয়েছে। আমরা বুঝতে পারলাম যে, বিমানবন্দরে যাওয়ার আগে হোটেল রুমেই তাকে বিষ দেয়ার কাজ করা হয়েছিল।

এর আগে, গত ২০ আগস্ট রাশিয়ার সাইবেরিয়া থেকে মস্কো ফেরার পথে বিমানের মধ্যেই অসুস্থ হয়ে পড়েন নাভালনি। পরে কোমায় থাকা অবস্থায় তাকে চিকিৎসার জন্য বার্লিনে নিয়ে যাওয়া হয়। তার দলের দাবি, রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের নির্দেশেই নাভালনির ওপর বিষপ্রয়োগ করা হয়। তবে প্রথম থেকেই এই অভিযোগ অস্বীকার করে আসছে ক্রেমলিন।

প্রায় এক মাস অসুস্থ থাকার পর গত সোমবার নাভালনির স্বাস্থ্যের উন্নতি হয়েছে। তিনি এখন বিছানা থেকে উঠতে পারছেন ও ভেন্টিলেটর ছাড়াই শ্বাস নিতে পারছেন তিনি। ইনস্টাগ্রামে পরিবারের সঙ্গে একটি ছবি পোস্ট করে তিনি নিজেই এ কথা জানান। এরপর এক টুইটার পোস্টে তার মুখপাত্র কিরা ইয়ারমিশ জানিয়েছেন, রাশিয়ায় ফেরার পরিকল্পনা করছেন নাভালনি।

এদিকে, রাশিয়ার কাছে নাভালনির এই ঘটনার বিষয়ে ব্যাখ্যা দাবি করেছে জার্মানি, ফ্রান্স, যুক্তরাজ্যসহ আরো কয়েকটি দেশ। মস্কোর বিরুদ্ধে নতুন নিষেধাজ্ঞারও আহ্বান জানিয়েছে তারা।

বৃহস্পতিবার হেগ-ভিত্তিক অর্জানাইজেশন অব প্রহিবিশন অব কেমিক্যালস উইপনস (ওপিসিডব্লিউ) জানিয়েছে, নাভালনিকে বিষ প্রয়োগের ঘটনা তদন্তে সংস্থাটির সহায়তা চেয়েছে জার্মানি।

সূত্র- আল জাজিরা

ডেইলি বাংলাদেশ/এসএমএফ/আরএএইচ