নিরাপত্তা আইনে বিরোধী নেত্রীকে অভিযুক্ত করলো বেলারুশ

নিরাপত্তা আইনে বিরোধী নেত্রীকে অভিযুক্ত করলো বেলারুশ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৬:১৬ ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২০  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

বেলারুশে এক মাসেরও বেশি সময় ধরে চলা সরকারবিরোধী বিক্ষোভের অন্যতম নেত্রী মারিয়া কোলেনসিকোভাকে নিরাপত্তা আইনে অভিযুক্ত করা হয়েছে। জাতীয় নিরাপত্তা লংঘনে তার বিরুদ্ধে উসকানি দেয়ার অভিযোগ আনার কথা বৃহস্পতিবার এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম বিবিসি।

তদন্তকারী কমিটি বলেছে, মিডিয়া ও ইন্টারনেটের মাধ্যমে বেলারুশিয়ান জাতীয় নিরাপত্তা ক্ষুণ্ন করার উদ্দেশ্যে ব্যবস্থা নেয়ার ডাক দেয়ায় গত সোমবার অভিযুক্ত করা হয় ওই নারী নেত্রীকে। এর আগে আইনজীবীর দায়ের করা বিবৃতিতে কোলেনসিকোভা বলেছেন, নির্দেশ দেয়া হয়েছে আমাকে যে করেই হোক বেলারুশ থেকে তাড়ানো হবে। তাছাড়া ২৫ বছর পর্যন্ত আমাকে কারাবন্দি করার হুমকি দেওয়া হয়েছে।  

এই গণবিক্ষোভের নেতৃত্বে থাকা তিন নেত্রীর মধ্যে কেবল কোলেনসিকোভা দেশ ছেড়ে যাননি। সম্প্রতি কর্তৃপক্ষ তাকে দেশ থেকে তাড়াতে চাইলে তার পাসপোর্ট ছিড়ে ফেলেন তিনি। কয়েকজন মুখোশধারী তাকে ইউক্রেনে পাঠাতে জোর করে সীমান্তে নিয়ে গিয়েছিল তাকে। অবশ্য তার দুজন সহযোগীকে ইউক্রেনে পাঠিয়ে দেয়া হয়।

গত ৯ আগস্ট প্রেসিডেন্ট আলেক্সান্ডার লুকাশেঙ্কো বিপুল ভোটে টানা ষষ্ঠ মেয়াদে নির্বাচিত হলে গণবিক্ষোভ শুরু হয়। তার বিরুদ্ধে ভোট কারচুপির অভিযোগ এনে গত পাঁচ সপ্তাহ ধরে অন্তত ১ লাখ লোক বিক্ষোভ করেছে।

নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণার পর লুকাশেঙ্কোর প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ও বিরোধী নেত্রী সভেৎলানা তিখানোভস্কায়া লিথুয়ানিয়া পালিয়ে যেতে বাধ্য হন। আরেক নেত্রী ভেরোনিকা তেপকালোও দেশ ছেড়ে যান।

অবশ্য লুকাশেঙ্কো বহাল তবিয়তে ক্ষমতায় আছেন। কদিন আগে বিক্ষোভকারীদের বিরুদ্ধে ব্যাপক ধরপাকড় চলেছে। রাশিয়ান প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সমর্থনও জুটেছে। মস্কোতে সরাসরি সাক্ষাতের পর দেড় কোটি ডলার ঋণও দিয়েছেন রাশিয়ার রাষ্ট্র প্রধান।

তিখানোভস্কায়া বিবিসিকে বলেছেন, লুকাশেঙ্কোকে ক্ষমতাচ্যুত করতে রাশিয়ার সঙ্গে কথা বলতে প্রস্তুত বিরোধী দল। তবে একজন স্বৈরশাসককে পুতিন সমর্থন দেয়ায় দুঃখ পাওয়ার কথা জানালেন তিনি।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএএইচ