২২৭ কেজি খুচরো পয়সায় কর্মীকে বেতন, গুনতেই গেল সাত ঘণ্টা

২২৭ কেজি খুচরো পয়সায় কর্মীকে বেতন, গুনতেই গেল সাত ঘণ্টা

মজার খবর ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৭:১৯ ১১ জানুয়ারি ২০২২   আপডেট: ১৪:২৯ ১৫ জানুয়ারি ২০২২

খুচরো পয়সায় পাওয়া বেতন। ছবি : টুইটার

খুচরো পয়সায় পাওয়া বেতন। ছবি : টুইটার

যদি এমন হয়, আপনার বেতন ৫০ হাজার টাকা। হঠাৎ দেখলেন, সেই টাকা ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে ঢুকল না বা চেকেও দেওয়া হল না। আপনি বেতনের সম্পূর্ণটাই পেলেন খুচরো পয়সায়!

এমন ভাবে বেতন পাওয়ার কথা কেউ ভাবতে পারে না এই যুগে। তবে এক কর্মীর সঙ্গে এমনই করেছেন একটি সংস্থার মালিক। কাজ নিয়ে মালিকের সঙ্গে বনিবনা না হওয়ায় কর্মীকে ‘শায়েস্তা’ করতে এমনই কাজ করেছেন তিনি। ঘটনাটি ঘটেছে আমেরিকার জর্জিয়ার।

দেশেটির গণমাধ্যম ‘মিরর’-এ প্রকাশিত এক প্রতিবেদন অনুযায়ী, অ্যান্ড্রিয়াজ ফ্লেটেন নামে এক মেকানিকের সঙ্গে তার সংস্থার মালিকের সম্পর্ক তিক্ত পর্যায়ে পৌঁছেছিল। সম্পর্ক খারাপ হওয়ায় অ্যান্ড্রিয়াজ কাজ ছেড়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন। সেই সুবাদে মালিককে তার বেতনের পুরো টাকা মিটিয়ে দিতে বলেন। মালিক রাজিও হয়ে যান। কিন্তু অ্যান্ড্রিয়াজকে শায়েস্তা করার জন্য ৯১৫ মার্কিন ডলার (বাংলাদেশি ৭৮ হাজার ৫৮৯ টাকা) পুরোটাই কয়েন এবং খুচরো পয়সায় দেন। যার ওজন হয় ২৭৭ কেজি।

খুচরো পয়সায় পাওয়া বেতন। ছবি : টুইটার

বস্তায় ভরে সেই টাকা দেওয়া হয় অ্যান্ড্রিয়াজকে। সেই টাকা গুনতে তার সাত ঘণ্টা সময় লেগেছে বলে অভিযোগ তুলেছেন অ্যান্ড্রিয়াজ। শুধু তাই নয়, তার বেতনের পুরো টাকাটাও দেননি মালিক।

বিষয়টি টুইটারে শেয়ার করেন অ্যান্ড্রিয়াজ। তা মুহূর্তেই ভাইরাল হয়। এমনকি আমেরিকার শ্রম দফতরের কাছে পৌঁছায় বিষয়টি। শ্রম দফতর বিষয়টি নিয়ে আদালতে যায়। এর পরই মাইলস ওয়াকার নামে ওই মালিকের বিরুদ্ধে প্রশাসনকে পদক্ষেপ করতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তার বিরুদ্ধে কর্মীকে হেনস্থা, শ্রম আইন ভঙ্গসহ একাধিক মামলা রুজু করা হয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/কেবি