গাইবান্ধা জেনারেল হাসপাতালে বসানো হচ্ছে অক্সিজেন প্ল্যান্ট 

গাইবান্ধা জেনারেল হাসপাতালে বসানো হচ্ছে অক্সিজেন প্ল্যান্ট 

গাইবান্ধা প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৬:২৪ ৩ মে ২০২১   আপডেট: ১৬:২৭ ৩ মে ২০২১

গাইবান্ধা জেলা সদর জেনারেল হাসপাতালের অক্সিজেন প্ল্যান্ট নির্মাণের কাজ দ্রুত এগিয়ে চলেছে।

গাইবান্ধা জেলা সদর জেনারেল হাসপাতালের অক্সিজেন প্ল্যান্ট নির্মাণের কাজ দ্রুত এগিয়ে চলেছে।

করোনা পরিস্থিতি সংকট নিরসনে জরুরি ভিত্তিতে গাইবান্ধা জেলা সদর জেনারেল হাসপাতালের অক্সিজেন প্ল্যান্ট নির্মাণের কাজ দ্রুত এগিয়ে চলেছে। যা এক মাসের মধ্যেই হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে হস্তান্তর করা হবে জানা গেছে।

তবে হাসপাতালটিতে মেডিসিন চিকিৎসকসহ বেশকিছু ডাক্তারের পদ শূন্য থাকায় এই প্ল্যান্ট থেকে কাঙ্খিত সুফল লাভ বিঘ্নিত হতে পারে বলে আশা করা হচ্ছে। জেনারেল হাসপাতালটিতে ৪২ পদের বিপরীতে কর্মরত রয়েছেন মাত্র ১৮ জন চিকিৎসক। সেজন্য অবিলম্বে গাইবান্ধা জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসকের শূন্যপদ পূরণ করা একান্ত জরুরি। 

জানা গেছে, ২০০ শয্যার এই হাসপাতালে নতুন যে ভবন তৈরি হচ্ছে তার পাশেই অক্সিজেন প্ল্যান্ট বসানোর কাজ চলছে। 

হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. মেহেদী ইকবাল বলেন, সেন্ট্রাল অক্সিজেন ব্যবস্থা চালু করতে অক্সিজেন প্ল্যান্ট বসানোর কাজ এমনিতেই চলছিল। তবে করোনা পরিস্থিতিতে কাজ দ্রুত শেষ করে আমাদের কাছে হস্তান্তর করা হবে। হাসপাতালের প্রতিটি বেডেই অক্সিজেন সংযোগ দেয়ার কাজও শেষ পর্যায়ে। তবে হাসপাতালে দীর্ঘদিন থেকে মেডিসিন বিশেষজ্ঞ না থাকায় এটি কাজে লাগানোর ক্ষেত্রে সমস্যায় পড়তে হবে। এছাড়া সার্জারি, কার্ডিওলজি, অর্থোসার্জারি, শিশু, ইএনটি, চক্ষু, চর্ম ও যৌন বিভাগে কোনো বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক নেই দীর্ঘদিন ধরে। 

তিনি আরো বলেন, ক্রিটিক্যাল করোনা রোগীর চিকিৎসার জন্য যে চিকিৎসকের প্রয়োজন তাও এখানে নেই। বর্তমানে হাসপাতালে করোনা রোগীর চিকিৎসার জন্য ২০টি বেড রাখা আছে। অক্সিজেন ইউনিট চালু হলে শ্বাস কষ্ট, হাপানীসহ অক্সিজেন সংক্রান্ত জটিলতায় ভোগা রোগীরা সুষ্ঠু এবং দ্রুত চিকিৎসার সুযোগ পাবেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকে