বিশ্বের সবচেয়ে দামি পানীয়র মূল্য ১ কোটি ১৬ লাখ, বয়স ২৬১ বছর

বিশ্বের সবচেয়ে দামি পানীয়র মূল্য ১ কোটি ১৬ লাখ, বয়স ২৬১ বছর

ফিচার ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৪:১৪ ১৮ জুলাই ২০২১  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

‘নতুন বোতলে পুরনো মদ’-ই নাকি বেশি জনপ্রিয় হয়। নতুন বোতলের বয়সও কখনো ১৫০ বছরের বেশি হয়ে থাকে। সম্প্রতি আমেরিকার এক সময়ের নামিদামি উদ্যোগপতি জেপি মরগ্যানের পারিবারিক সংগ্রহ থেকে এমনই পুরনো এক বোতল হুইস্কি পাওয়া গেছে। যার বয়স ২৫০ বছরের বেশি।

মাদক সবসময়ই স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। তারপরও জেনে-শুনে অনেকেই মদ্যপান করে থাকেন। তবে এর জন্য কিন্তু ভালোই খরচা করতে হত।ব্র্যান্ড অনুযায়ী, পানীয় বিভিন্ন দামের হয়ে থাকে। এর আবার বিভিন্ন প্রকারও রয়েছে।

এই বোতলে থাকা হুইস্কি ২৬১ বছরের পুরনো বলে জানা যায় গবেষণায় আমেরিকার সংবাদ সংস্থার সূত্রে জানা যায়, বোতলের গায়ের উপরের লেখা থেকে বোঝা যাচ্ছে এর ভেতরের পানীয়টি বোতলবন্দী করা হয় ১৮৬০ সালে। তবে ভেতরের পানীয়ের বয়স পরীক্ষার পর ধারণা করা গেছে, বোতলের ভেতরের হুইস্কি বোতলটির থেকেও ১০০ বছরের পুরনো। অর্থাৎ ভেতরের পানীয় ২৫০ বছরেরও বেশি সময় আগের।

জেপি মরগ্যানের ব্যক্তিগত সংগ্রহের তিনটি বোতলের মধ্যে এই বোতল পরবর্তীকালে উত্তরাধিকারীদের মালিকানায় আসে। তেমনই এক পারিবারিক সংগ্রহ থেকে বোতলটি খুঁজে পাওয়ার পর অনলাইনে বোতলটি নিলামে তোলা হয়েছিল। নিলামে বোতলটির দাম উঠেছে ১ লাখ ৩৭ হাজার মার্কিন ডলার। যা কিনা বাংলাদেশি মুদ্রায় মাত্র ১ কোটি ১৬ লাখ টাকারও বেশি। অর্থাৎ, এই বোতলের পানীয় গ্লাসে ঢেলে প্রতি চুমুকে খাওয়া হবে লাখ টাকা।

নিলামে বোতলটির দাম উঠেছে ১ লাখ ৩৭ হাজার মার্কিন ডলারএখন প্রশ্ন রয়েছে, মোটা অংকের দামের এই পানীয় কি পান করা যাবে? এটি কি আসলে পানের উপযুক্ত আছে? এ বিষয়ে কোনো আশার কথা বলতে পারেনি সুরা বিশেষজ্ঞরা। তারা বলছে, বোতলের ছিপি যদি খোলা না হয় তাহলে হুইস্কি ১০ বছর পর্যন্ত ভালো থাকতে পারে। কিন্তু এটির বয়স ২৫০ বছর অতিক্রম করেছে। বিজ্ঞানীদের ধারণা, পানীয়টি তৈরি করা হয় ১৭৭০ থেকে ১৭৯০ সালের মধ্যে। এরপর ১৮৬০ সালে বোতলবন্দী করা হয়। সেই সময়ের থেকে এখন ছয় গুণ বেশি দাম উঠেছে নিলামে। 

ডেইলি বাংলাদেশ/কেএসকে