অঙ্কুশের সহকারীর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার, ঘনাচ্ছে রহস্য

অঙ্কুশের সহকারীর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার, ঘনাচ্ছে রহস্য

বিনোদন ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৩:৩৮ ৪ মার্চ ২০২১   আপডেট: ১৩:৪৪ ৪ মার্চ ২০২১

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

অঙ্কুশ ও ঐন্দ্রিলার সহকারীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। কলকাতার কাঁকুড়গাছিতে নিজের বাড়ি থেকে উদ্ধার করা হয় তার দেহ। ঘটনার খবর জানার পরই সোশ্যাল মিডিয়ায় দুঃখপ্রকাশ করেন অঙ্কুশ। তার প্রিয় বাপ্পাদা, তথা পিন্টু দে-র প্রয়াণে শোকার্ত অভিনেতা।

ইনস্টাগ্রামে তিনি লিখেছেন, আজ আমি আমার সবথেকে কাছের মানুষকে হারালাম। বাড়ির ভিতরে যেমন মা বাবা আমার খেয়াল রাখে ঠিক সেরকম বাড়ির বাইরে এই মানুষটি আমাকে আমার মা বাবার মতো খেয়াল রাখত। ১০ বছরের এই পথ চলা কোনোদিন ভুলব না। যেখানেই থেকো ভালো থেকো বাপ্পাদা। তবে আমাকে এভাবে ছেড়ে চলে যাওয়ার জন্য অভিমান সারাজীবন করব তোমার উপর। শুটিংয়ে সময় মতো ওষুধ খাব কিনা আর জানি না। সময় মতো পানি খাব কিনা জানি না। ছোট্ট টাওয়েল দিয়ে আমার শরীরের ঘাম কে মুছিয়ে দেবে আর জানি না। এভাবে অভ্যেস খারাপ করিয়ে দিয়ে চলে গেলে এর জন্য ক্ষমা করব না। জানি সম্ভব না তাও ফিরে এস।

পুলিশ সূত্রে খবর, পিন্টু দে-কে ব্ল্যাকমেল করা হচ্ছিল। তার কাছে টাকা চেয়ে ফোন আসত। পুলিশ প্রাথমিক তদন্তে এও জানতে পেরেছে পিন্টুর অ্যাকাউন্ট থেকে দেড় মাসে ৩০ হাজার টাকা তোলা হয়েছে। কিন্তু কাকে সেই টাকা দেয়া হয়েছে তা এখনো জানা যায়নি। মনে করা হচ্ছে ক্রমাগত এই চাপ সহ্য না করতে পেরে আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছেন তিনি। 

তার মোবাইল ফোন আপাতত পুলিশের হেফাজতে রয়েছে। প্রাথমিক তদন্তে বেশ কিছু তথ্য হাতে এসেছে পুলিশের। তার উপর ভিত্তি করে তদন্ত এগিয়ে নিয়ে যাওয়া হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/টিএএস