ফেসবুক থেকে উধাও শবনম ফারিয়া

ফেসবুক থেকে উধাও শবনম ফারিয়া

বিনোদন প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৫:২৯ ৩০ নভেম্বর ২০২০   আপডেট: ১৫:৩০ ৩০ নভেম্বর ২০২০

শবনম ফারিয়া

শবনম ফারিয়া

ভাঙল শবনম ফারিয়া-অপুর সংসার। বিয়ের ঠিক এক বছর নয় মাসের মাথায় সংসার জীবনের ইতি টানলেন এই দম্পতি। নিজ ইচ্ছায় ২৭ নভেম্বর বিচ্ছেদ পত্রে সই করেন দুজনে।

নিজের সংসার ভাঙার খবর ফেসবুকে জানিয়েছেন ছোট পর্দার আলোচিত অভিনেত্রী শবনম ফারিয়া। কিন্তু সেই ফেসবুকেই তার ব্যক্তিগত অ্যাকাউন্ট ও অফিশিয়াল ভেরিফায়েড পেইজ সোমবার (৩০ নভেম্বর) থেকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না।

শোনা যাচ্ছে বিচ্ছেদের পর সামাজিকযোগাযোগ মাধ্যমে তার বিচ্ছেদ নিয়ে চর্চার জন্য আপাতত ফেসবুক থেকে দূরে আছেন তিনি। তাই হয়তো নিজের অ্যাকাউন্ট ও পেইজ ডিএকটিভ (বন্ধ) করে রেখেছেন তিনি।

আরো পড়ুন: মালিক শনাক্ত করতে কুকুরের ডিএনএ টেস্ট

এদিকে গত শনিবার (২৮ নভেম্বর) সন্ধ্যায় হারুন অর রশীদ অপুর সঙ্গে বিচ্ছেদ প্রসঙ্গে নিজের ফেসবুকে পোস্টে ফারিয়া লেখেন, ‘জীবনটা নদীর মতো। কখনও জোয়ার, কখনও ভাটা। কখনও বৃষ্টিতে পানি বেড়ে যায়, শীতকালে পানি শুকিয়ে যায়। আমাদের জীবনেও এমনটা হয়! আমাদের জীবনে কিছু মানুষ আসে; কেউ কেউ স্থায়ী হয়, কেউ কেউ কিছু কারণে স্থায়িত্ব ধরে রাখতে পারে না। ’

এরপর থেকে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে শোবিজ অঙ্গনে তাদের নিয়ে আলোচনা শুরু হয়।

এরপর রোববার (২৯ নভেম্বর) ফারিয়া তার ফেসবুকে লেখেন, আমার বিচ্ছেদের সংবাদ প্রকাশের পর থেকে মানুষ আমাকে দোষ দিচ্ছেন, গালি-গালাজ করছেন। তবে কী আমি জানবো মানুষকে ছোট করা পছন্দ করেন মানুষ! আমি কেন স্ট্যাটাসে লিখেছি বিচ্ছেদ সুন্দর হবে। কেন বলছি আমরা বিচ্ছেদের পরও বন্ধু থাকবো।

আরো পড়ুন: ৯ মাস ধরে মায়ের মরদেহ সঙ্গে নিয়ে মেয়ের বসবাস

এই স্ট্যাটাস দেয়ার পর থেকেই ফেসবুক থেকে উধাও শবনম ফারিয়া।

২০১৫ সালে ফেসবুকের মাধ্যমে হারুন অর রশীদ অপুর সঙ্গে শবনম ফারিয়ার বন্ধুত্ব হয়। এরপর প্রণয় ও পরিণয়। ২০১৯ সালের ফেব্রুয়ারির ১ তারিখে পারিবারিকভাবে বিয়ে হয় তাদের।

ডেইলি বাংলাদেশ/এএ